ইলিশপ্রেমীকদের জন্য খুশির খবর, পুজোর প্রাক মুহূর্তে বাংলায় আসছে টন টন ইলিশ

পুজোর আগেই বাঙালির রসনা তৃপ্ত করতে বাংলাদেশ থেকে বাংলায় এসে পৌঁছল পদ্মার ইলিশ। বাংলার জন্য প্রায় ২০০ মেট্রিক টন পদ্মার ইলিশ বরাদ্দ করলেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। দুর্গাপূজার উপহার হিসেবে পড়শী দেশের বেনাপোল-হরিদাসপুর স্থলবন্দর দিয়ে এ পর্যন্ত প্রায় ১ হাজার ৮৭৫ মেট্রিক টন ইলিশ পশ্চিমবঙ্গে পাড়ি দিয়েছে। ফলে বাজারে ইলিশের যোগান বাড়বে। সাথে সাথে দামও প্রায়ই মধ্যবিত্তের নাগালের মধ্যেই থাকবে বলে আশা করা হচ্ছে।

প্রতি কেজি ইলিশের দশ মার্কিন ডলার হিসেবে নির্ধারণ করেছে বাংলাদেশ। ভারতীয় মুদ্রায় যা প্রায় হাজার টাকার কাছাকাছি। ফলে এ পর্যন্ত বাংলাদেশ থেকে প্রায় ১ কোটি ৮৭ লক্ষ ৫০ হাজার মার্কিন ডলার অর্থাৎ কয়েক কোটি টাকা মূল্যের ইলিশ পশ্চিমবঙ্গে ঢুকেছে। সূত্রের খবর, গত বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ থেকে ইলিশের সর্বশেষ চালান পশ্চিমবঙ্গে এসে পৌঁছেছে। যেখানে প্রায় ১৯৭ মেট্রিক টন ইলিশ ভারতে এসেছে।

মৎস্য ব্যবসায়ীরা জানাচ্ছেন, বাংলাদেশ থেকে আগত প্রতিটি ইলিশের ওজন প্রায় ১ কেজি ২০০ গ্রামের কাছাকাছি। শার্শা উপজেলা মৎস্য আধিকারিক আবুল হাসান জানিয়েছেন, বাংলাদেশের বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের তরফ থেকে ১৩ জন রপ্তানিকারককে দুই দফায় মোট ১ হাজার ৮৭৫ মেট্রিক টন ইলিশ ভারতে রপ্তানি করার অনুমতি প্রদান করা হয়েছে। সেইমতো গত ১৪ই সেপ্টেম্বর প্রথম চালানে ১২ মেট্রিক টন ইলিশ ভারতে প্রবেশ করে।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশের প্রায় ২০০ জন রপ্তানিকারক ভারতে ইলিশ রপ্তানি করার অনুমতি চেয়ে ছিলেন। তাদের মধ্য থেকে মাত্র ১৩ জনকেই বেছে নেওয়া হয়েছে। সূত্রের খবর, বাংলাদেশের পদ্মা, মেঘনা, যমুনাতে এবার ইলিশের যোগান অনেক বেশি। ফলে এক কেজি ওজনের ইলিশ সেখানে ৮০০-১১০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। তার থেকে কম ওজনের ইলিশ কেজিপ্রতি ৬০০-৭০০ টাকায় বিক্রি করা হচ্ছে।