পোস্ট অফিসের বেশ কয়েকটি সুপারহিট “প্রকল্প”, যেখানে ইনভেস্ট করে আপনি হবেন লাভবান

কে না চায় বলুন তো জীবনে একটু ভালো থাকতে? নানান জায়গা থেকে নানান সুবিধা পেতে? প্রত্যেকেরই ভালোভাবে জীবন কাটানোর জন্য অবশ্যই প্রয়োজন টাকা সেই টাকা আয় করে আপনি চাইবেন যে কিছু জমিয়ে রাখতে যা আপনার ভবিষ্যতে কাজে লাগবে। এমনই কিছু প্রকল্প রয়েছে যার মাধ্যমে আপনার জীবন বদলে যেতে পারে এবং আপনি আরো বেশি বেশি পেতে পারেন সুবিধা। আমরা স্বাভাবিকভাবেই ব্যাংকে কিংবা পোস্ট অফিসে টাকা রেখে থাকি এবং সেভিংস এর মাধ্যমে জমা করে থাকি যার মাধ্যমে আমরা আমাদের ভবিষ্যৎ কে সিকিওর করতে পারি। তবে, কোন ব্যাংকে বা কোন পোস্ট অফিসে কত টাকা বা কিভাবে ডাকলে আপনি বেশি সুবিধা পাবেন সেটা বিষয় অবশ্যই আপনার জানা প্রয়োজন কারণ এই সেভিংস এবং এই টাকাগুলি আপনাকে আপনার ভবিষ্যত নিশ্চিত করবে।

পোস্ট অফিসে ক্ষেত্রে বেশ দুর্দান্ত কিছু প্রকল্প রয়েছে যেখানে আপনি যদি সেভিংস করেন তাহলে আপনি বেশ উপকৃত হবেন। ক্ষুদ্র সঞ্চয় প্রকল্পের যেমন আপনি বিনিয়োগ যদি করেন তাহলে এই বিনিয়োগে আপনাকে নিশ্চয়তা দেওয়া হবে সরকারের পক্ষ থেকে এবং এই বিনিয়োগ করার ফলে আপনি যখন টাকা টি ফেরত পাবেন তখন বেশ মোটা অংকের টাকায় পাবেন এবং তার সাথে আপনাকে কোনো ছাড় দিতে হবে না।

আসুন জেনে নেই সেই ধরনের যোজনা গুলি কি কি রয়েছে।

প্রথম হল সিনিয়র সিটিজেন সেভিংস একাউন্ট, এই যোজনায় আপনি শুনতে পাচ্ছেন বর্তমানে ৭.৮ যারা দেশের প্রবীণ নাগরিক তারাই এই সুবিধাটি পেয়ে থাকবেন। প্রতি তিন মাস অন্তর সেভিংস এর সুদ টি আপনার একাউন্টে জমা হবে এবং এই ধরনের একটি যোজনা তে আপনি ছাড় পেতে পারেন প্রায় ৮০ সি।

পরের প্রকল্পটি হলো ন্যাশনাল সেভিংস, সার্টিফিকেট এটি একদম ফিক্সড ডিপোজিট এর মত ৮০ সির মধ্যে থাকার জন্য এখানে ছাড় পাওয়া যাবে সুদ পেতে পারেন 6.8 শতাংশ এবং এই প্রকল্পটির আপনি বছরের সুদ পাবেন যখন ঐ টাকাটি ম্যাচিউরিটি হবে।

তৃতীয় প্রকল্প টি হল পোস্ট অফিস টাইম ডিপোজিট, এখানে কেয়ার বল পাঁচ বছর মাত্র ২০০ টাকা আপনাকে জমা করতে হবে এবং তিন বছর অন্তর অন্তর আপনি ৫.৫ শতাংশ সুদ পাবেন এবং যখন পাঁচ বছরে গিয়ে পৌঁছবে তখন আপনার সুদ হবে ৬.৭ শতাংশ। প্রতিবছর বছরই এই সুদ দিয়ে দেওয়া হবে । এই সুদের ওপর কোনো রকম কর নেওয়া হবে না।

পরের প্রকল্পটি হল কিষান বিকাশ পত্র। এই প্রকল্পটিতে পোস্ট অফিসে আপনাকে জমা দিতে হবে ১০০০ টাকা এটা জমা দেয়ার একটি বন্ড দিতে হবে যেটা পাওয়া যাবে সেটা পোস্ট অফিসে। এটার সুদ পাওয়া যাবে ৬.৯ শতাংশ।