কোন কারণ ছাড়াই গত ২ বছর কানে বেজেই যাচ্ছিলো শব্দ, বিরল চিকিৎসায় সুস্থ হলেন যুবক

কান সম্পর্কিত বিরলতম এক রোগে ভুগছিলেন চেন্নাইয়ের বাসিন্দা এক ২৬ বছর বয়সী যুবক। নাম তার ভেঙ্কট। বিগত প্রায় দুই বছর ধরে ভেঙ্কট তার কানে উৎসবিহীন বেশ কিছু শব্দ শুনতে পাচ্ছিলেন। সারাদিন এমনকি সারারাত করে তার কানে বেজে চলেছিল অদ্ভুত কিছু শব্দ। সবথেকে অবাক হওয়ার মত কথা হল, এই শব্দের কোনো উৎস নেই। ভেঙ্কটের মস্তিষ্কপ্রসূত অবিরাম এই শব্দ শুনতে-শুনতে নাজেহাল হয়ে পড়েছিলেন তিনি।

বিগত দুই বছর ধরে বহু চিকিৎসকের শরণাপন্ন হয়েছেন ভেঙ্কট। তবে তাতে লাভ কিছুই হয়নি। চিকিৎসকেরা বারবার তাকে এই বলে ফিরিয়ে দিয়েছেন যে, তার কানে কোনো সমস্যাই নেই। তবে অবশেষে ভেঙ্কটের সমস্যা চিহ্নিত করতে পেরেছেন এমজিএম হেলথকেয়ার ইনস্টিটিউট অব নিউরোসিয়েন্সেস এন্ড স্পাইনাল ডিজঅর্ডার বিভাগ এর কর্ণধার এবং ডাক্তার কে শ্রীধর।

ওই চিকিৎসক জানিয়েছেন ভেঙ্কট আসলে টিনিটাস নামক বিরলতম এক রোগে ভুগছেন। সারা পৃথিবী জুড়ে ৫০ জনেরও কম ব্যক্তি এ পর্যন্ত এই রোগে আক্রান্ত হয়েছেন বলে খবর পাওয়া গিয়েছে। ওই চিকিৎসক যে শুধু ভেঙ্কটের সমস্যা চিহ্নিত করেছেন তাই নয়, এক জটিল অপারেশন মারফত ভেঙ্কটকে আবার স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে আনতে সক্ষম হয়েছেন তিনি।

ওই চিকিৎসক জানিয়েছেন, এই জটিল অস্ত্রোপচারে কিছু ভুল হলে ভেঙ্কট সারা জীবনের মতো মূক এবং বধির হয়ে যেতে পারতেন। কিন্তু চিকিৎসকের নিখুঁত প্রয়াসে তেমনটা হয়নি। বিগত দুই বছর ধরে পড়াশোনা, কাজকর্ম, এমনকি ঘুমেরও বেশ ব্যাঘাত ঘটেছে ভেঙ্কটের। এতদিনে তিনি স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে পেরে অত্যন্ত স্বস্তি বোধ করছেন।