লোকসভায় তীব্র বিরোধিতা, তা সত্ত্বেও পাশ হল ব্যাংকিং নিয়ন্ত্রণ সংশোধনী বিল

বুধবার, বিরোধীদের প্রবল বিরোধিতা সত্ত্বেও সংসদের বাদল অধিবেশনে লোকসভায় পাস হয়ে গেল ব্যাংকিং নিয়ন্ত্রণ সংশোধনী বিল। এই বিলের মাধ্যমে এবার থেকে সমবায় ব্যাংক গুলি রিজার্ভ ব্যাংকের আওতায় চলে আসবে। বিরোধীদের দাবি ছিল, এই ব্যাঙ্কগুলি রিজার্ভ ব্যাংকের আওতায় চলে এলে রাজ্যের অধিকারে হস্তক্ষেপ করবে কেন্দ্র। তবে অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন জানিয়েছেন, এই বিলের মাধ্যমে সমবায় ব্যাংক গুলি রিজার্ভ ব্যাংকের আওতায় আসছে, কেন্দ্রের আওতায় নয়।

এদিন বিল পাসের আগে অবশ্য সর্বদলীয় বৈঠকের আয়োজন করা হয়। সেই বৈঠকে বিরোধীরা এই অধ্যাদেশ জারির তীব্র প্রতিবাদ করেন। এমনকি বিলটিকে পাশ করার আগে সিলেট কমিটিতে পাঠানোর দাবিও তোলা হয়েছিল। তবে বিরোধীদের সব দাবি খারিজ করে দিয়ে এদিন লোকসভায় পাস হয়ে যায় ব্যাংকিং নিয়ন্ত্রণ সংশোধনী বিল। কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন জানান, আমানতকারীদের স্বার্থ রক্ষার উদ্দেশ্যে সরকারকে অধ্যাদেশ জারি করতে হয়েছিল।

বিরোধীদের বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে তিনি বলেন, বিলটি সম্পূর্ণভাবে কেন্দ্রের নিয়ন্ত্রণাধীন, সংবিধানের কেন্দ্র-রাজ্য যৌথ তালিকাভুক্ত নয়। অতএব এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য রাজ্যের সাথে আলোচনা করার কোনো প্রয়োজন নেই বলেই জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী। এদিকে বিরোধীদের অভিযোগ, তাদের আপত্তি থাকা সত্ত্বেও বিলটিকে সিলেক্ট কমিটিতে পাঠানো হলো না।

নির্মলা সীতারামন জানিয়েছেন, বর্তমানে সমবায় ব্যাংকগুলির আর্থিক অবস্থা অত্যন্ত দুর্বিষহ। তিনি জানিয়েছেন, বর্তমানে দেশের ২৭৭ টি কোঅপারেটিভ ব্যাংক লোকসানের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে এবং ১০৫ টি ব্যাংক মূলধনের অভাবের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে। তাই গ্রাহকদের স্বার্থরক্ষার উদ্দেশ্যেই এমন সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হয়েছে সরকার। তিনি আরো জানিয়েছেন, বাজেট অধিবেশন পেশ করার সময়েই এই বিল পাস করার কথা ছিল কেন্দ্রের, তবে করোনা মহামারীর জন্য তা পিছিয়ে যায়।

সব খবর সরাসরি পড়তে আমাদের WhatsApp  Telegram  Facebook Group যুক্ত হতে ক্লিক করুন