জনপ্রিয়তার শীর্ষে মোদি, নিষিদ্ধ চীনা অ্যাপ “উইবো”-তে ফলোয়ার ২ লক্ষ ৪০ হাজার

সোমবার রাতে দেশের প্রধানমন্ত্রী একটি ঘোষণার মাধ্যমে জানান, বাতিল করা হয়েছে চীনের ৫৯টি মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন। যার মধ্যে রয়েছে টিক টক, জেন্ডার, শেয়ার ইট, ইউসি ব্রাউজারের মত জনপ্রিয় সব অ্যাপ।সম্প্রতি জানা গেল ৫৯ টি বাতিল অ্যাপ্লিকেশনের মধ্যে আছে “উইবো” অ্যাপ। যেখানে একসময় একাউন্ট খুলেছিলেন স্বয়ং প্রধানমন্ত্রীও। ভারতে যেমন টুইটার জনপ্রিয়, চীনে তেমনই উইবো।

সূত্রের তরফে খবর, ভারতীয় প্রধানমন্ত্রীর ভেরিফাইড একাউন্ট ছিল উইবোতে। চীনাদের সাথে যোগাযোগ বাড়াতেই এই অ্যাপ ব্যবহার করতেন তিনি। সেখানে বহু ফ্যান ফলোয়ার্স ছিল তার। সংখ্যাটা প্রায় ২ লাখ ৪০ হাজার মতো।

তবে সমস্যার সূত্রপাত হলো চীন-ভারত সংঘর্ষের পর থেকে।১৫ই জুন গালওয়ান উপত্যকায় ২০ জন ভারতীয় সৈনিক এর মৃত্যুর পর চীনের প্রতি ক্ষুব্ধ হয় ভারত। “প্রধানমন্ত্রীর পোস্ট হিংসা ছড়াচ্ছে এবং দেশের শান্তি ভঙ্গ করছে”এই অজুহাতে বিদেশমন্ত্রকের তরফে জারি করা বিবৃতি, ও সর্বদলীয় বৈঠকে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য চিনা অ্যাপগুলি থেকে ডিলিট করে দেওয়া হয়।

লাদাখ সীমান্তে ভারতীয় ভূখণ্ড আগ্রাসনে মুখিয়ে আছে চীন। চিনা সেনার আক্রমণ ঠেকাতে সব রকম ভাবে প্রস্তুত ভারতীয় সেনাবাহিনী। দেশে উঠেছে চীনের বিরুদ্ধে ঝড়। ক্ষুব্ধ দেশবাসী বারবার দাবি তুলেছে চীনের কোন কিছুই ব্যবহার করা যাবে না ভারতে। রাজনৈতিক শিবির গুলিতেও এ বিষয় নিয়ে চলেছিল জোর তরজা। সূত্র থেকে জানা যাচ্ছে, তথ্যপ্রযুক্তি ক্ষেত্রেও চীনা সামগ্রী ব্যবহারে নিষেধাজ্ঞা আনবে কেন্দ্র। স্বভাবতই এই সিদ্ধান্তে খুশি দেশবাসী।