শুক্লা চতুর্থীর দিন এই দেবীর পর পুজো পান তারাপিঠের মাতারা

78

কথিত আছে তাঁরা পিঠে মা তারা আর মুলটি গ্রামের মা মৌলিখা দুই বোন। শুক্লা চতুর্থী অর্থাত্ কোজাগরী লক্ষ্মীপুজোর দিন মা তারা পুজিত হন আলাদা ভাবে, কথিত আছে এ দিন মা তারাকে অন্য দিকে মুখ করে পুজো করানো হয় পাশাপাশি শুক্লা চতুর্থীর দিন মা মৌলিকার পুজো আগে হয় তার পর পুজো পান না তাঁরা।

বীরভূম সীমানা লাগোয়া ঝাড়খণ্ডের মুলটি গ্রামে গৌতম বুদ্ধের সময় দেবী মৌলিকা আবির্ভূত হন, সেই সময়ে সন্ন্যাসী ও রাজা প্রথম এই দেবীর দর্শন পান। বীরভূম আর ঝাড়খণ্ডের মাঝখান দিয়ে বয়ে গেছে তারকা নদী সেই নদীর একেবারে ঝাড়খণ্ড সীমান্ত লাগোয়া রামপুরহাট আর অন্যদিকে তারাপীঠ,

শোনা যায় নাটোরের রানী স্বপ্নে তারাপীঠের মা তারাকে দেখতে পেয়েছিলেন তারপর রানীর নির্দেশে রাজা তারা পিঠে পুজোর ব্যবস্থা করেন অন্যদিকে ঝাড়খণ্ডের তত্কালীন রাজা মুলটি গ্রামে ঘট প্রতিষ্ঠার মধ্য দিয়ে মৌলিক্খার পুজো শুরু করেন। আর এ ভাবেই মৌলিক থাকে বড় এবং মা তারাকে ছোট বোন বলা হয়।

এই রকম আপডেট পেতে লাইক করুন