ধনতেরাসে ঘরে সৌভাগ্য আনতে অবশ্যই মেনে চলুন এই নিয়মগুলি

আর কিছু দিনের অপেক্ষা। তারপর আসতে চলেছে কালীপুজো এবং তার সঙ্গে ধনতেরাস। আশ্বিন মাসের কৃষ্ণা ত্রয়োদশীর দিন ধনতেরাসের অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে দীপাবলি উৎসবের সূচনা করা হয়। এই উৎসব শেষ হয় ভাইফোঁটার দিন। দীপাবলি হিন্দুদের অন্যতম একটি বড় উৎসব। সারা বিশ্বজুড়ে সব জায়গায় কমবেশি এই আলোর উৎসব পালন করা হয়।বাঙ্গালীদের দুর্গা সব এবং নবরাত্রী উৎসব শেষ হবার ১৮ দিন পর দীপাবলি উৎসব শুরু হয়। দীপাবলি কথাটির অর্থ হল প্রদীপের সমষ্টি। তাই এই দিন প্রত্যেক হিন্দুরা তাদের বাড়িতে মঙ্গল কামনায় প্রদীপ জ্বালান।

এই প্রদীপ জ্বালানোর মানে হল বাড়ির সমস্ত অমঙ্গল বিতরণ এর প্রতীক। এই দিন সমস্ত হিন্দু বাড়ির মানুষের বাড়িঘর পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করে সারারাত প্রদীপ জ্বালিয়ে সমস্ত অলক্ষী কে বিদায় করে লক্ষ্মী কে আহবান করেন। পশ্চিমবঙ্গে কালীপূজা খুবই জনপ্রিয় উৎসব। এই দিনটি সকল জায়গায় আলোর উৎস হিসেবে পালন করা হয়। ১৭৭৭ খ্রিস্টাব্দে কাশীনাথ রচিত শ্যামাসপর্যাবিধিগ্রন্থে এই পুজোর সর্বপ্রথম উল্লেখ পাওয়া গেছে।

কথিত রয়েছে যে, নদীয়ার রাজা কৃষ্ণচন্দ্র অষ্টাদশ শতকে সকল প্রজাকে শাস্তির ভীতি প্রদর্শন করে কালী পুজো করতে বাধ্য করেছিলেন। এই উৎসবের দিন পালন করা হয়েছিল ধনতেরাস উৎসব। ধন মানে সম্পদ এবং তেরাস কথাটির অর্থ হল ত্রয়োদশী। কার্তিক মাসের কৃষ্ণপক্ষের ১৩ তম দিন ধনতেরাস হিসেবে পালন করা হয়। এই দিন শুধুমাত্র সোনা কিনলেই হবে না, তার পাশাপাশি পালন করতে হবে কিছু নিয়ম। দীপাবলীর আগের দিন সারা বিশ্বে ধনতেরাস দিনটি পালন করা হয়।

এইদিন নিজেদের ভাগ্য উন্নত করতে লক্ষী এবং কুবেরের পুজো করতে হয়। দেশের বিভিন্ন জায়গায় বিভিন্ন ভাবে এই পূজা পালন করা হয়। মনে করা হয় যে, এইদিন কুবের তার আরাধ্যা দেবী লক্ষ্মী পুজো করে ধনপতি হয়েছিলেন। সেই দিন থেকে এই বিশেষ তিথিতে ধন সম্পদ বৃদ্ধির আশায় পালন করা হয় ধনতেরাস।

ধনতেরাসের দিন সারা বাড়ি পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন করে মূল প্রবেশদ্বার এর সামনে রং দিয়ে রঙ্গলি বানাতে হয়। এছাড়া প্রবেশদ্বারের দুপাশে আঁকতে হয় লক্ষ্মীর পায়ের চিহ্ন। অনেকে দীপাবলি র দিন লক্ষ্মীপুজো করে থাকেন।

এই দিন একটি ছোট ঘটে নতুন কেনা ধাতু অথবা কয়রা নিয়ে তাতে সামান্য চাল, সুপারি, তেরোটি পদ্ম বীজ, গঙ্গা জল দিয়ে ওপর থেকে ফুল, শোনা অথবা রুপোর কয়েন রেখে দিতে হবে। যদি নতুন গয়না কিনতে না পারেন, সে ক্ষেত্রে পুরনো গয়না ব্যবহার করতে পারেন। এই নিয়ম পালন করলে আপনার জীবনে ধন এবং সম্পত্তির কোন অভাব হবে না।