প্রতিদিন ৮৭টি ধ’র্ষণের ঘটনা ভারতে, চাঞ্চল্যকর রিপোর্ট দিল ন্যাশনাল ক্রাইমস রেকর্ড ব্যুরো

ভারতের মেয়েদের বিরুদ্ধে সংঘটিত অপরাধের সংখ্যা প্রতিনিয়ত বাড়ছে বৈ কমছে না। সম্প্রতি ন্যাশনাল ক্রাইমস রেকর্ড ব্যুরোর তরফ থেকে দেশে মেয়েদের বিরুদ্ধে সংগঠিত অপরাধ মূলক কার্যাবলীর একটি রিপোর্ট পেশ করা হয়েছে। এই রিপোর্টের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, ২০১৯ সাল থেকে ভারতে প্রতিদিন গড়ে প্রায় ৮৭টি ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। রিপোর্ট বলছে, চলতি বছরে আদালতে মেয়েদের বিরুদ্ধে সংঘটিত অপরাধের জন্য প্রায় ৪ লক্ষ ৫ হাজার ৮৬১টি মামলা দায়ের হয়েছে।

ন্যাশনাল ক্রাইমস রেকর্ড ব্যুরোর রিপোর্ট থেকে জানা গেল, ২০১৮ সালে ৩ লাখ ৭৮ হাজার ২৩৬টি নারী নির্যাতনের মামলা দায়ের হয়েছে। ২০১৮ সালের তুলনায় ২০১৯ সালে নারীদের বিরুদ্ধে সংগঠিত অপরাধের হার ৭.৩ শতাংশ বেড়েছে। পরিসংখ্যান অনুযায়ী, ২০১৮ সালে প্রতি লাখ মহিলার মধ্যে ৫৮.৮ শতাংশ অপরাধ সংঘটিত হয়েছে। ২০১৯ সালে সেই সংখ্যাটা ৬২.৪ শতাংশে বেড়ে দাঁড়িয়েছে।

২০১৮ সালের রিপোর্ট অনুযায়ী, ৩৩ হাজার ৩৫৬টি ধর্ষণের মামলা দায়ের হয়েছে। ২০১৭ সালে যেখানে সংখ্যাটা তুলনামূলকভাবে কিছুটা কম ছিল। ২০১৭ সালে ৩২ হাজার ৫৫৯টি ধর্ষণের মামলা দায়ের হয়। রিপোর্টে এও জানানো হয়েছে, মহিলাদের বিরুদ্ধে সংঘটিত অপরাধের ৩০.৯ শতাংশই পারিবারিক হিংসা মামলা। ২১.৮ শতাংশ ক্ষেত্রে শ্লীলতাহানীর মতো ঘটনা রয়েছে। ১৭.৯ শতাংশ ক্ষেত্রে মহিলারা অপহৃত হয়েছেন। দিন প্রতিদিন মহিলাদের বিরুদ্ধে অপরাধ প্রবণতা বেড়েই চলেছে।

বাদ পড়ছে না শিশুরাও। ২০১৮ সালের তুলনায় ২০১৯ সালে শিশুদের বিরুদ্ধে অপরাধ প্রবণতা প্রায় ৪.৫ শতাংশ হারে বেড়েছে। ২০১৯ সালে শিশুদের বিরুদ্ধে প্রায় ১ লাখ ৪৮ হাজার অপরাধের মামলা দায়ের হয়েছে। এরমধ্যে‌ ৪৬.৬ শতাংশ ক্ষেত্রে শিশু অপহরণের রিপোর্ট দায়ের হয়েছে। বাকি ৩৫.৩ শতাংশ ক্ষেত্রে শিশুদের যৌন হেনস্থার শিকার হতে হয়েছে। দেশের প্রায় ৩৬ টি রাজ্য এবং ৫৩ টি মেট্রোপলিটন শহরের রিপোর্ট একত্রিত করে ন্যাশনাল ক্রাইম রেকর্ড ব্যুরোর তরফ থেকে এই পরিসংখ্যান পেশ করা হয়েছে। তবে এই রিপোর্টে পশ্চিমবঙ্গের কোনো উল্লেখ নেই। পশ্চিমবঙ্গের তরফ থেকে এ সংক্রান্ত কোনো রিপোর্ট পেশ করা হয়নি বলেই জানা গেছে।