৬ মাস পর তাজমহলে পড়লো পর্যটকদের পদধূলি, প্রথম পর্যটক যিনি তিনি এক চীনা নাগরিক

দীর্ঘ লকডাউন থাকার পর ফের আরও একবার স্বাভাবিক হতে চলেছে জনজীবন। চলতি বছরের গোড়ার দিকে জনগণকে রক্ষা করার জন্য স্বাভাবিকভাবেই দেশের সমস্ত পর্যটন কেন্দ্র এবং ঐতিহাসিক সৌধ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল। বিশ্বের সপ্তম আশ্চর্যের মধ্যে গণ্য করা হয় তাজমহল কে।তাই ভারতের ঐতিহাসিক স্মৃতিসৌধ এই তালিকা থেকে বাদ যায়নি।শুধুমাত্র ভারতীয় পর্যটক নয় বিদেশী পর্যটকদের ক্ষেত্রেও কড়া নজরদারি রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল প্রশাসন থেকে। কোনভাবেই যেন মহামারী ছড়িয়ে না যায় তার দিকে কড়া নজর রেখেছিলেন কেন্দ্র।

আজ কেটে গেছে ছয় মাস। ফের আরও একবার পর্যটকদের জন্য খুলে দেওয়া হয়েছে তাজমহলের দরজা। আশ্চর্যজনকভাবে তাজমহলে প্রবেশ করা প্রথম পর্যটক হলেন একজন চীনা নাগরিক। সোমবার প্রায় ১৮৮ দিন পর পর্যটকদের জন্য খুলে দেওয়া হয় তাজমহল। এদিকে সরকারি সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে আর্কিওলজিক্যাল সার্ভে অফ ইন্ডিয়া তরফ থেকে জানানো হয়েছে যে,বহুদিন পর তাজমহলের দরজা খোলার পর বেশ ভালো পর্যটকদের ভিড় হয়েছে তাজমহলে।সোমবার তাজমহলের ভিড় করেছিলেন প্রায় ২০ জন বিদেশি পর্যটক এবং ১২১৫ জন ভারতীয় পর্যটক। এই সংখ্যাটি উত্তরোত্তর যে বাড়বে তা নিয়ে আশাবাদী আর্কিওলজিক্যাল সার্ভে অফ ইন্ডিয়া।

তাজমহলের পাশাপাশি সোমবার থেকে খুলে দেওয়া হয়েছে আগ্রা ফোর্টের দরজা। সোমবার ঐতিহাসিক এইসব দেখতে হাজির হয়েছিলেন ২৪৮ জন পর্যটক যার মধ্যে ৫ জন হলেন বিদেশি। প্রতিদিন সমস্ত স্মৃতি সৌধ গুলিতে প্রায় পাঁচ হাজার লোককে ঢুকতে দেওয়া হবে বলে জানানো হয়েছে। প্রথম ধাপে ঢুকবেন আড়াই হাজার মানুষ, দুপুর দুটোর পর আরও আড়াই হাজার মানুষ প্রবেশ করতে পারবেন।আগ্রা ফোর্টের প্রতিদিন আড়াই হাজার পর্যটক কে ঢোকার অনুমতি দেওয়া হবে।

তাজমহল দর্শন করার জন্য প্রতিদিন বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে জড়ো হন প্রায় ৭০ লক্ষ বিদেশি পর্যটক।তাজমহল আগ্রা ফোর্টের ঢোকার জন্য আগে থেকে আর্কিওলজিক্যাল সার্ভে অফ ইন্ডিয়ার ওয়েবসাইটে গিয়ে অনলাইনে টিকিট বুক করতে হবে পর্যটকদের। QR কোড স্ক্যান করা হলে পর্যটকরা ভেতরে ঢোকার অনুমতি পাবেন। ভেতরে ঢুকে বিভিন্ন সামাজিক দূরত্ব বিধি মেনে চলতে হবে পর্যটকদের। দেয়ালে এবং রিডিং এ পেজ দিয়ে দাঁড়ানো চলবে না। মাক্স পড়তে হবে প্রত্যেক পর্যটকদের।এছাড়াও থার্মাল স্ক্রীনিং করার পর ভেতরে প্রবেশ করার অনুমতি দেওয়া হবে।