পুজো কমিটি গুলোকে ঢালাও অর্থ সাহায্য, আরো আর্থিক অনুদান দিতে প্রস্তুত মমতা

এবার যেনো মমতা ব্যানার্জী চুপিসারেই ছক্কা হাকিয়ে দিলো বলেই অনেকে মনে করছে বিশেষজ্ঞেরা। কারণ বিরোধীদের মতে নাকি বাংলায় হয় না দূর্গাপূজা, আর সেই কারণেই সরকার এবার তাদের অবস্থান স্পষ্ট করে দিল বলেই মনে করা হচ্ছে। কারণ এবার রাজ্য সরকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে, ১০ বছরের পুরোনো পুজোই কিন্তু শুধু নয় যেসব পুজো কিমিটি অনেকটাই আর্থিক অনটনের মধ্যে আছে তাদের এবার অনুদান দেবে সরকার।

মমতা ব্যানার্জি অনেক আগের থেকেই জানিয়েছিলেন সেপ্টেম্বরের মধ্যেই ৩৭ হাজার পুজো কমিটি গুলোকে ৫০ হাজার করে টাকা অনুদান দেবে, আর সেটা নিয়ে অনেক জলঘোলা হয়েছে রাজ্য রাজনীতিতে। কারণ বিরোধীরা দাবি করেছে মানুষের টাকা নিয়ে এভাবে ছিনিমিনি, কখনই মেনে নেওয়া হবে না। যার ফলে হাইকোর্টে মামলাও দায়ের করা হয়েছে। কিন্তু তাতাএও দমে যায় নি মুখ্যমন্ত্রী, কারণ ফের আর্থিক অনুদানের কথা জানিয়েছেন মমতা ব্যানার্জী।

এই আর্থিক অনুদান আসলে যে অন্য কিছুর ইঙ্গিত দিচ্ছে সেটা মনে করছে রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকেরা। মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, ১০ বছরের পুরোনো হলে দূর্গাপূজা কমিটি টাকা পায়, কিন্তু এবার যেগুলো ক্লাব ১০ বছরের কম গরীব ক্লাব রয়েছে তাদেরও এবার কিছু কিছু আর্থিক সাহায্য করা হবে। অন্য সব রাজ্যের পুজোর অনুমতি নিয়ে গড়িমশি থাকলেও এই রাজ্যে সেই অনুমতি দিয়েছে সরকার। তাই এই প্রসঙ্গে মমতা ব্যানার্জী জানিয়েছেন, বাংলাদেশের ভাই–বোন,রাজবংশী, তফসিলি,কামতাপুরি,আদিবাসী, সবাইকে নিয়েই এবার পুজোটা করব।