নির্বাচনের কাজে গিয়ে মৃত্যু হলে ক্ষতিপূরণ দিতে হবে ৫০ লক্ষ টাকা, দাবি করলেন শিক্ষকরা

এতদিন যার অপেক্ষায় ছিল সবাই সেই অপেক্ষার অবসান ঘটেছে ইতি মধ্যে। কারণ নির্বাচন কমিশনের তরফ থেকে পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভার ভোটের দিনক্ষণ ঘোষণা করে দেওয়া হয়েছে। আর তারপর থেকেই উত্তেজনা একেবারে তুঙ্গে। কারণ প্রত্যেক বারের মত এবারও যাতে ভোট কর্মীদের নিরাপত্তা কোন ব্যাঘাত না ঘটে সেই নিয়ে উঠেছে প্রশ্ন। স্বাভাবিকভাবেই শিক্ষক ও শিক্ষকদের তরফ থেকে নিরাপত্তা কথা তোলা হয়েছে সাথে বলা হয়েছে যদি ভোট নেওয়ার সময় ভোট কর্মীদের মৃত্যু হয় তাহলে নির্বাচন কমিশনকে ৫০ লক্ষ টাকা দিতে হবে সেই পরিবারকে ওর সাথে একজনকে চাকরি। সবার প্রথমে বঙ্গীয় প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির তরফ থেকে এই প্রস্তাব তোলা হয়েছে।

এই দাবি তুলে রাজ্যের মুখ্য নির্বাচন কমিশনের দপ্তরে স্মারকলিপি জমা করেছে শিক্ষক সমিতি। গত বুধবারে ওই কাজ করা হয়েছে বিভিন্ন জেলার নির্বাচন আধিকারিকদের দপ্তরে। বিশেষ করে এই ধরনের স্মারকলিপি জমা করা হয়েছে অ্যাডভান্ডস সোসাইটি ফর হেডমাস্টার অ্যান্ড হেডমিস্ট্রেস এবং সেকেন্ডারি টিচার্স অফ এমপ্লয়িজ অ্যাসোসিয়েশনের পক্ষ থেকেও। তারা জানিয়েছে, ভোট কর্মীদের নিরাপত্তা ব্যবস্থা করবে কেন্দ্রীয় বাহিনী।

তাদের সুরক্ষার দায়িত্ব পুরোটাই কেন্দ্রীয় বাহিনীর উপরে দেওয়া থাকবে এমনকি ব্যবস্থা করতে হবে বিমার,যার জন্য প্রত্যেককেই ভোটের আগে দিতে হবে সার্টিফিকেট। এখানেই শেষ নয়, বাড়ি ফেরার সময়ও দিতে হবে তাদের নিরাপত্তা। আগামী ২৭ মার্চ থেকে ২৯ এপ্রিল পর্যন্ত চলবে ৮ দফার ভোট। এবার করোনার কথা মাথায় রেখেই ভোটের সূচি ঘোষণা করা হয়েছে। সমস্ত কিছু হওয়ার পরে আগামী ২ রা মে ঘোষণা করা হবে ভোটের ফল।