বেতন স্কেলে ভারী পরিবর্তন, ষষ্ঠ পে কমিশনে সমতা ফেরাতে নতুন প্রস্তাব, কিছুদিনেই মিলবে সুখবর

সম কাজ-সম বেতন নিয়ে দীর্ঘদিন ধরেই রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের মধ্যে সরকারের বিরুদ্ধে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছিল। বাংলায় বিভিন্ন ক্যাডারে একই পদের জন্য বেতনক্রম আলাদা কেন হবে, এই নিয়ে সরকারের বিরুদ্ধে একাধিক বার সরব হয়েছিলেন রাজ্য সরকারি কর্মচারীরা। কর্মচারীদের ক্ষোভ নিরসন করতে এবার রাজ্যের তরফ থেকে ষষ্ঠ বেতন কমিশনের দ্বিতীয় দফার রিপোর্ট পেশ করা হল।

রাজ্য সরকারের অন্দরমহল সূত্রে খবর, এই রিপোর্টে কাজ এবং বেতনে সমতা আনার সুপারিশ করেছেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এখন শুধু সিলমোহরের অপেক্ষা। পুজোর আগেই সম্ভবত সরকারি কর্মচারীদের দাবি পূরণ করতে সমর্থ হবে রাজ্য। সরকারি ও সরকারের অধীনস্থ বিভিন্ন সংস্থার কর্মচারীদের চাকরির শর্তাবলি খতিয়ে দেখেই নতুন করে সংস্কার আনার কথা ভাবছে রাজ্য।

এই প্রক্রিয়া সম্পন্ন হওয়ার পরেই সম্ভবত সরকারের তরফ থেকে এই সুপারিশ কার্যকর করা হবে বলে আশা করা হচ্ছে। সহকারী পদে নিয়োগের ক্ষেত্রেও বেশকিছু গুরুত্বপূর্ণ সংস্কার আনা হচ্ছে। যেমন, একই কাজের জন্য প্রার্থীর যোগ্যতা এবং নিয়োগের পদ্ধতি যাতে একরকম হয় তা নিশ্চিত করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি, রাজ্যের যেসকল দপ্তরে পদন্নতির সুবিধা কম, সেক্ষেত্রেও সমতা আনার কথা ভাবা হচ্ছে।

উল্লেখ্য, শূন্য পদে নিয়োগের ক্ষেত্রে গত তিন বছর ধরে সরকারের সকল দফতর এবং কর্মচারী সংগঠনগুলির সঙ্গে দফায় দফায় বৈঠক করা হচ্ছে বলে জানা গেছে। রাজ্যের নিয়োগ কমিশনের চেয়ারম্যান অভিরূপ সরকার জানালেন, ষষ্ঠ বেতন কমিশনের সুপারিশ খতিয়ে দেখবে রাজ্য সরকার।এই সুপারিশ অনুসারে রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের চাকরির শর্ত আরও মজবুত হবে বলেই আশ্বাস প্রদান করেছেন তিনি।