মাঝপথে বিয়ে ছেড়ে দৌড়ে প্রেমিকের গাড়িতে লাফিয়ে উঠলেন কনে, কান্নায় ভেঙে পড়লেন পাত্র

প্রতীক ছবি

থ্রি ইডিয়টস এর সেই শেষ দৃশ্যের কথা নিশ্চয়ই মনে আছে। যেখানে কারিনা কাপুর বিয়ের মন্ডপ ছেড়ে ছুটে পালিয়ে গেলেন এবং চেপে বসলেন গাড়িতে। তবে তার সেই গাড়িটি ছিল কিন্তু বরের বন্ধুর। তবে এক্ষেত্রে বিয়ের মণ্ডপ থেকে বর কে ছেড়ে করে সোজা পালিয়ে গিয়ে উঠল প্রেমিকের গাড়িতে।গোটা ঘটনাটির একটি ভিডিও সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়াতে ভাইরাল হয়েছে। যা দেখে রীতিমতো চর্চা শুরু হয়ে গেছে সকল মহলে। ভিডিওটি দেখে নেটিজেনরা হাসবে না কাঁদবে, তা বুঝে উঠতে পারছে না।

ঘটনাটি ঘটেছে আমেরিকার একটি চার্চে। সেখানে নিয়মমতো সকলকে নিয়ে বিয়ের অনুষ্ঠান শুরু হয়ে গিয়েছিল। চরম মুহুর্তে হঠাৎ করে বিয়ের পোশাক পরেই কনে দৌড়ে পালিয়ে যায় চার্চ থেকে। পিছন পিছন ছুটে চলে আসে তার হবু স্বামী। বারবার পেছন থেকে হবু স্ত্রীকে ডাকতে থাকে সে। কিন্তু কে কার কথা শোনে।সবকিছুই আগে থেকেই প্ল্যান করা ছিল তা বোঝাই যাচ্ছে এই ভিডিওতে।

তাই হয়তো বিয়ে করার সময় পায়ে হিলের বদলে কনে পড়েছিলেন স্নিকার। ভবিষ্যতে যেন ছুটতে অসুবিধে না হয় তার জন্যেই এই ব্যবস্থা করে রেখেছিলেন তিনি। ঊর্ধ্বশ্বাসে চার্চের সিড়ি গুলো টপকে একেবারে তিনি লাফ দিয়ে চেপে বসলেন প্রেমিকের গাড়িতে। অন্যদিকে প্রেমিকও এক্কেবারে তৈরি হয়েছিলেন।যেই না লাফ দিয়ে প্রেমিক উঠে পড়লেন গাড়িতে, সঙ্গে সঙ্গে প্রেমিক গাড়ি চালিয়ে চলে গেলেন।

অন্যদিকে বর বাবাজি তাদের ধরতে না পারার অভিমানে কাঁদতে শুরু করে দিলেন সেখানেই। যদিও গালিগালাজ থেকে শুরু করে জুতো ছোড়া কোন কিছুই বাদ রাখেনি তিনি। কিন্তু হবু স্ত্রীকে কিন্তু বাড়ি ফেরাতে পারলেন না তিনি। তাই রাগে দুঃখে সেখানেই বসে পড়লেন বিয়ে করতে আসা বর। সিনেমার বাইরেও যে এই রকম দৃশ্য বাস্তবে দেখে পাওয়া যায়, সেটা সত্যি আমাদের কাছে ছিল অজানা। এই ভিডিও থেকে আরো একবার প্রমাণ হয়ে গেল যে, প্রেম কোন কিছুর বাধা মানে না। যে কোন প্রকারে তাকে জিততেই হয়।