রাম মন্দিরের খননকার্য চলার সময় মাটির নিচে মিললো প্রাচীন দেব-দেবীর মূর্তি

সুপ্রিম কোর্টের সেই ঐতিহাসিক নির্দেশের পর অযোধ্যায় রাম মন্দির নির্মাণ কাজ দ্রুত এগোচ্ছে। বর্তমানে রাম মন্দিরের ভিত প্রস্তুত করার কাজ চলছে। এই ঐতিহাসিক পটভূমিতে খননকার্য চালিয়ে ইতিপূর্বে বহু প্রাচীন দেবদেবীর মূর্তি এবং অন্যান্য সামগ্রী উদ্ধার করা হয়েছে যে গুলির ঐতিহাসিক মূল্য অপরিসীম। এবার সেই স্থানে খননকার্য চালিয়ে উদ্ধার হলো বহু প্রাচীন পাদুকা এবং প্রাচীন দেবদেবীর কিছু মূর্তি।

প্রসঙ্গত রাম মন্দিরের ভিত নির্মাণের উদ্দেশ্যে প্রায় ৪০ ফুট গভীরে খননকার্য চালিয়ে একটি ভগ্নপ্রায় পাদুকা এবং প্রাচীন ভাস্কর্যের কিছু নিদর্শন মিলেছে। এই সংগৃহীত সামগ্রী গুলি সুরক্ষিত ভাবে শ্রী রাম জন্মভূমি তীর্থ ক্ষেত্র ন্যাস দ্বারা সংরক্ষণ করে রাখা হয়েছে। এই প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শনের গুরুত্ব সম্বন্ধে জানার জন্য বৈজ্ঞানিক পরীক্ষা-নিরীক্ষা প্রয়োজন রয়েছে বলে জানিয়েছে সংশ্লিষ্ট সংস্থা।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, এর আগেও শ্রী রাম জন্মভূমি চত্বর সমতল করার সময় অতি প্রাচীন কিছু নিদর্শন মিলেছে। প্রাচীন নকশাদার শিলা, কয়েকটি ভগ্ন মূর্তি এবং প্রাচীন মন্দিরের সঙ্গে যুক্ত কিছু পাথরের ধ্বংসাবশেষও উদ্ধার হয়েছে। এমনকি সীতা রসোইতে খনন কার্য চালানোর সময়েও রান্নার কাজে ব্যবহৃত বিশালাকার একটি শানপাথর এবং বেলুনচাকিও উদ্ধার করা হয়েছিল।

শ্রী রাম জন্মভূমি তীর্থ ক্ষেত্র ন্যাসের দাবি অনুসারে, মানস ভবনে খনন কার্য চালানোর সময় ভগবান শ্রী রামের পাদুকা পাওয়া গিয়েছিল। সংগৃহীত এই প্রাচীন নিদর্শন গুলি রাম মন্দিরের মিউজিয়ামে সংরক্ষণে করে রাখা হবে বলে জানানো হয়েছে। ভক্তরা রাম মন্দিরের মিউজিয়ামে এই নিদর্শনগুলি দেখতে পাবেন।