শাহিদ কাপুরের সাথে বিচ্ছেদ করিনার, বেশি খুশি হয়েছিলেন দিদি করিশ্মা কাপুর ও মা, কারণ জেনে নিন

বলিউডের এক সময়কার দারুণ জনপ্রিয় জুটি শাহিদ ও করিনা। এই দুই লাভ বার্ডস এর সম্পর্কে এমন অনেক ধরনের গুঞ্জন শোনা যায় বলিউডে, যা নিয়ে নেটিজেনরা আজও উচ্ছ্বসিত। তাদের মধ্যে বিচ্ছেদ হয়েছে, যা অনেক বছর হয়ে গেলেও, তাদের দুইজনকে নিয়ে চর্চা এখনও থেমে থাকে নি।স্বাভাবিকভাবেই সেই সময়ে তাদের মধ্যেকার বিষয়বস্তু জানতে না পারলেও সময়ের সাথে সাথে এখন সবকিছুই যেন প্রকাশ্যে চলে এসেছে। তাদের প্রথম পরিচয় ফিদা ছবির থেকে।ফিদা ছবিতে কারিনা কাপুরের বিপরীতে ফরদীন খান থাকলেও সেই ছবির সূত্র ধরেই শাহিদের সাথে আলাপ করিনা কাপুরের। এরপরেই বন্ধুত্ব, প্রেমে পরা কাছে আসা।

একটা সময় তাদের মধ্যে ঘনিষ্ঠতা এতটাই বৃদ্ধি পেয়েছিল, যার কারণে তারা একে অপরকে ছেড়ে একটু সময় থাকতে পারত না। যার প্রকৃত উদাহরণ শাহিদ কাপুর নিরামিষাশী হওয়ার কারণে, করিনা কাপুর ও আমিষ থেকে নিরামিষাশী হয়ে উঠেছিলেন। এরপরে একটা সময় কারিনা কাপুরের কাছে যত ছবির প্রস্তাব আসতে থাকে সেখানে শাহিদ কাপুরকে কাস্ট করার কথাই বলেন তিনি, এদিকে শাহিদও একই কাজ করতে থাকে। কিন্তু সবকিছু ঠিক চললেও , এই দুই লাভ বার্ডসের মধ্যে সমস্যার সৃষ্টি করেছিল বেবোর মা ও দিদি করীশ্মা কাপুর।

কারণ কাপুর পরিবারের মতো শাহিদ কাপুর তেমনটা জনপ্রিয় না হওয়ায়, সম্পর্ককে কোনোভাবেই মেনে নিতে পারেনি তার মা ও দিদি। এর কারণেই একটা সময় কারিশমা কাপুরের সাথে কারিনা কাপুরের দূরত্ব বৃদ্ধি পেয়েছিল অনেকটাই।পরের দিকে মাকে রাজি করাতে পারলে ও দিদিকে রাজি করানো সম্ভব হয়ে ওঠেনি কারিনা কাপুরের কাছে। যার ফলে এই ধীরে ধীরে দুই লাভ বাক্সের মধ্যে ভাঙ্গন ধরতে থাকে যা একটা সময় বিচ্ছেদে পরিণত হয়।

এরপরে ওমকারা ছবির শুটিং করার সময় সাইফ আলী খানের সাথে পরিচয় হয় করিনা কাপুরের, আর তারপরেই শুরু এক নতুন পর্বের।বর্তমানে শাহিদ কাপুর মীরা রাজপুত কে বিয়ে করে খুশিতেই আছেন। এদিকে সাইফ আলী খানের সাথে কারিনা কাপুরও বিবাহ বন্ধনে জড়িয়েছেন। তবে যাই হোক না কেন, যদি বলিউডে কান পাতা যায় তাহলে এখনও হালকা পাতলা গুঞ্জন শোনা যায় তাদের নামে।