জরুরি অবস্থা জারি করার সিদ্ধান্ত ভুল ছিলো, সাড়ে চার দশক পরে ঠাকুমা ইন্দিরার ভুল মানলেন রাহুল

ভারতের তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধীর আমলে দেশে চালু হয়েছিল জরুরি অবস্থা। জরুরি অবস্থায় সাধারণের অধিকার খন্ডনের অভিযোগ তুলে ইন্ডিয়া সরকারের সেই সিদ্ধান্তের এখনো বিরোধিতা করে বিজেপি। সেই প্রসঙ্গ তুলে এখনো কংগ্রেসকে বিদ্ধ করে কেন্দ্রীয় শাসক দল। এবার কংগ্রেস দলনেতা রাহুল গান্ধীও প্রকাশ্যেই ঠাকুরমা ইন্দিরা গান্ধীর সেই সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করলেন।

তবে বর্তমান কেন্দ্রীয় শাসক দলের নীতির বিরোধিতা করতে গিয়েই পুরনো প্রসঙ্গ টেনে এনেছেন রাহুল। এদিন করোনিল বিশ্ববিদ্যালয় আয়োজিত অনুষ্ঠানে অংশ গ্রহণ করে প্রখ্যাত অর্থনীতিবিদ কৌশিক বসুর সঙ্গে কথা বলছিলেন রাহুল গান্ধী। সাক্ষাৎকার চলাকালীন রাহুল গান্ধী বলেন, “তৎকালীন সময়ে জরুরি অবস্থা চালু করার সিদ্ধান্ত ভুল ছিল। ঠাকুরমা যে কথাগুলি বলেছিলেন, তা ঠিক ছিল না।”

তবে রাহুল দাবি করেন, জরুরি অবস্থাতেও কংগ্রেস কখনো স্বশাসিত সংস্থাগুলির কাজে হস্তক্ষেপ করেনি। কংগ্রেস কখনোই দেশের গণতান্ত্রিক কাঠামোতে হস্তক্ষেপ করেনি। রাহুল আরো বলেছেন, বর্তমান পরিস্থিতির সঙ্গে তৎকালীন পরিস্থিতির অনেক পার্থক্য রয়েছে। রাহুল উল্লেখ করে দেন, আরএসএস (RSS) নামক সংস্থাটি দেশের অন্যান্য স্বশাসিত সংস্থাগুলিকে আক্রমণ করছে।

রাহুল দাবি করেন, বর্তমানে কংগ্রেস যদি বিজেপিকে হারিয়ে দেশের ক্ষমতায় আসে তবুও সমস্ত পরিস্থিতি বদলাতে অনেক সময় লাগবে। কারণ দেশের সমস্ত সংস্থার আরএসএস নিজেদের সদস্যদের ঢুকিয়ে রেখেছে। তবে বিশ্বের পাঁচটি রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনের আগে সর্বসমক্ষে রাহুলের এই অকপট স্বীকারোক্তি কংগ্রেসকে বেশ অস্বস্তিতে ফেলে দিয়েছে।