হাইকোর্টের নির্দেশে খারিজ ভোটা ভোটি, অনিশ্চিত ভাট পাড়ার ভবিষ্যত

এবার ভাটপাড়ার ভবিষ্যত ঝুলে রইল হাইকোর্টের হাতে। সেখান প্রস্তাবের ওপরে ভোটাভোটির প্রস্তাব খারিজ করে দিল হাইকোর্ট। আসলে এখন ১৯ টি কাউন্সিল আছে তৃণমূলের হাতে, কিন্তু তার জন্য যে অনাস্থা ভোটের প্রয়োজন তার আবেদন করে তৃনমূল, কিন্তু এই খবর পেয়ে বিজেপি আইন বিরুদ্ধ কাজের দাবিতে হাইকোর্টে তৃণমূলের উদ্দেশ্যে মামলা করে দেয়, আর তার ফলেই এবার তৃণমূলের সেই আবেদন খারিজ করে দেয় হাইকোর্টের সিঙ্গেল বেঞ্চ।

এখন তৃণমূল সিদ্ধান্তও নিয়েছে যে তারা এবার যাবে ডিভিশন বেঞ্চে। আসলে এই ঝামেলাটা দেখা গেছে অর্জুন সিং যখন তৃনমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিয়েছে তখন থেকে। তখন তার সাথে সাথে অনেক কাউন্সিলর বিজেপিতে যোগ দিয়েছে, আর তার ফলেই তা তৃণমূলের হাত ছাড়া হয়েছে।

পরে অবশ্য কয়েকজন তৃণমূলে ফিরেছে, কিন্তু তখনও পর্যন্ত ভাটপাড়া ছিল বিজেপির হাতে। কিন্তু এবার যখন বিজেপি ছেড়ে ১৪ জন কাউন্সিলর ফের তৃণমূলে যোগ দিয়েছে তখন সেই ক্ষমতা আবার ফিরে এসেছে তৃণমূলের হাতে। সেখানে মোট ৩৫ আসন। তার মধ্যে ম্যাজিক ফিগার ১৯ টি।

এখন তৃণমূলের কাছে ১৯ টি আসন থাকাতেও তারা বোর্ড গঠন করতে পারছে না, কারণ অনাস্থা ভোটের জন্য যে অনুমতি দরকার তা খারিজ করে দিয়েছে হাইকোর্ট। কিন্তু তৃনমূল দমে যাওয়ার দল নয়। তারা সেই সিঙ্গেল বেঞ্চকে চ্যালেঞ্জ করে ডিভিশন বেঞ্চে যাওয়ার কথাও বলেছে। তবে তারা ভেবেছিল ১৯-০ তে বিজেপিকে হাড়িয়ে বোর্ড দখল করবে, তা আর হল কোথায়? কারণ হাইকোর্ট সেখানে বাধা হয়ে দাড়িয়েছে।