৫ লক্ষ টাকার পুরস্কার ফিরিয়ে দিয়ে মাত্র ৭ টাকা নিলেন ব্যক্তি, কিন্তু কেন?

115

৪০ হাজার টাকা কুড়িয়ে পেয়েছিলেন ধানাজি জগদালে নামে এক ব্যক্তি, বাড়ি মহারাষ্ট্রের সাতারায়। সেই টাকা মালিককে ফিরিয়ে দেন তিনি। ধানাজি দিনমজুর, দিনের রোজগার দিনেই করেন তিনি। তবুও কুড়িয়ে পাওয়া টাকার উপর লোভ করেননি তিনি।

এই রকম আপডেট পেতে লাইক করুন

দিওয়ালির দিন মহারাষ্ট্রের দাহিওয়াড়ি বাস স্টান্ডে একটি টাকার বান্ডিল কুড়িয়ে পান ধানাজি। সেই বান্ডিলে ৪০ হাজার টাকা ছিল। কিছুদূর গিয়ে এক ব্যক্তিকে কিছু খুঁজতে দেখেন ধানাজি। তখন তিনি অনুমান করেন, টাকার বান্ডিলটি ওই ব্যক্তিরই হবে। ধানাজি জিজ্ঞাসাবাদ করে ওই টাকা ওই ব্যক্তিকে দিয়ে দেন ধানাজি।

স্ত্রীর চিকিৎসার জন্য ওই ব্যক্তি ৪০ হাজার টাকা জোগাড় করে নিয়ে যাচ্ছিলেন। খুশি হয়ে ১ হাজার টাকা দিতে চান ওই ব্যক্তি। কিন্তু ধানাজি তা নিতে অস্বীকার করেন। শুধু ৭ টাকা চেয়ে নেন ধানাজি। কারণ সেখান থেকে তাঁর বাড়ি যেতে ১০ টাকা লাগে। তাঁর কাছে ৩ টাকা ছিল, প্রয়োজন ছিল ৭ টাকার। তাই ধানাজি ৭ টাকাই নেন।

খবরটি ছড়িয়ে পড়লে সাতারার বিজেপি বিধায়ক শিবেন্দ্ররাজে ভোসলে তাঁকে সম্মানিত করেন এবং কিছু অর্থ সাহায্য করতে চান। কিন্তু অর্থ নিতে অস্বীকার করেন ধানাজি। শুধু তাই নয়, সাতারার কোরেগাঁও তহসিলের রাহুল বারগে নামে এক ব্যক্তি, যিনি আমেরিকায় কর্মরত, তিনি ধনাজিকে ৫ লক্ষ টাকা পুরস্কার দেবেন বলে ঠিক করেন। সেই টাকা নিতেও অস্বীকার করেন ধানাজি। তিনি বলেছেন, অন্য কারোর অর্থ নেওয়ার মধ্যে কোনো তৃপ্তি নেই। সঙ্গে সততার সাথে বাঁচার বার্তা দিয়েছেন তিনি।

এই রকম আপডেট পেতে লাইক করুন