৫ বছরে সর্বোচ্চ হবে কার্বন ডাই অক্সাইডের পরিমাণ, বড়সড় বিপর্যয়ের আশঙ্কা বিশ্বে

এবার করোনার আবহের মধ্যেই সামনে এলো এক অবাক করা তথ্য, ন্যাচার সাইন্টিফিক রিপোর্টসের তথ্য অনুযায়ী একটি রিপোর্ট পেশ করা হয়েছে সম্প্রতি। আর যা দেখে একেবারে অবাক হয়ে গেছে সবাই। আসলে আগামী ৫ বছরে অর্থাৎ ২০২৫ সালের মধ্যে কার্বন ডাই অক্সাইডের পরিমাণ বাড়বে অনেকটাই । আর সেটা একেবারে সর্বোচ্চ। আসলে ন্যাচার সাইন্টিফিক রিপোর্টসের বিজ্ঞানীরা এবার জানিয়েছে এই ঘটনা গত ৩৩ লক্ষ বছরে দেখা যায় নি, এবার ফের সেই অবস্হা ঘুরে আসছে।

তাই মানব জাতি ফের আরেকবার কষ্টের মধ্যে কাটাতে পারে বলেই জানা যাচ্ছে। এই বাতাসের ভারসাম্য রক্ষা করতে, এবার ফের লড়াই চালাতে হবে মানবজাতির। এই পরীক্ষা আসলে হয়েছিল, সমুদ্রের তলা থেকে গ্রহণ করা সেডিমেন্ট দিয়েই। সেখানে সমুদ্রের তলা থেকে সেডিমেন্ট গ্রহণ করে গবেষকরা পরীক্ষা করে দেখেছেন, যাতে দেখা গেছে তখনকার পৃথিবীর গড় তাপমাত্রা ছিল ৩ ডিগ্রী বেশী। এদিকে মেরু অঞ্চলের বরফের আকারও ছিল তখন ছোট।

তাই এখন গবেষকদের কাছে এটাই কৌতুহল যে, পৃথিবী কিভাবে মানিয়ে নিয়েছে সব জায়গা দিয়ে, বিশেষ করে কার্বন ডাই অক্সাইডের মধ্যে। তবে আগামী ২০২৫ সালের মধ্যে নাকি পৃথিবীতে কার্বন ডাই অক্সাইডের পরিমাণ বাড়তে চলেছে অনেকটাই ২.৫ পিপি এম। আর এই বৃদ্ধি হলেই , সেই ৩৩ লক্ষ বছরের রেকর্ড কেও ভেঙে দেবে বলে জানা যাচ্ছে। কিন্তু এখন কার্বন ডাই অক্সাইডের পরিমাণ বাড়লে পৃথিবীর তাপমাত্রাও বৃদ্ধি পাবে অনেকটাই। এখন বিজ্ঞানীরা বলছেন একটা কথাই, এবার পৃথিবী এই নতুন তাপমাত্রার সাথে নিজেকে খাপ খাইয়ে নিতে কত সময় নেয়।