রাজ্যে স্কুল-কলেজ কবে খুলবে? উত্তরবঙ্গ সফরে এসে তা জানালেন মুখ্যমন্ত্রী

টানা ৭ মাসের পর উত্তরবঙ্গ সফরে এসেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। আর সেখানেই তিনি বিভিন্ন কিছু আগাম সিদ্ধান্ত নিয়ে কথা বলেছেন। সেখানে তিনি বলেছেন আগামীতেই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলা হবে। কালীপূজার পরেই স্কুল কলেজ খোলার চিন্তা ভাবনা করা হচ্ছে। টানা ৬ মাস থেকে রাজ্যের সমস্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান একেবারেই বন্ধ। কোনভাবেই করোনার কারণে খোলা সম্ভব হচ্ছে না, তাই শিক্ষার্থীদের অনলাইনের মাধ্যেমে ক্লাস নেওয়া হচ্ছে। আজ ১ লা অক্টোবর থেকেই শুরু হয়ে গেলো স্নাতক ও স্নাতকোত্তরের ওপেন বুক সিস্টেমের পরীক্ষা।

আর সেই পরীক্ষার পরেই ডিসেম্বরে স্কুল কলেজ খোলার একটা ভাবনা চিন্তা চলছে সরকারের। এই নিয়ে শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় জানিয়েছেন আসলে আগামী ডিসেম্বরে যদি স্কুল খোলা হতে পারে যেটা নিয়ে ছাত্র ছাত্রী ও অভিভাবকদের চিন্তা শুরু হয়েগেছে। এবার এই প্রসঙ্গেই মমতা ব্যানার্জী জানিয়েছেন, আসলে কালীপূজার পরের দিকেই স্কুল কলেজ খোলার চিন্তা ভাবনা করা হচ্ছে। এখনও পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয় নি, তবে আগামীর জন্য চিন্তাভাবনা চলছে।

গতকাল বুধবার মুখ্যমন্ত্রী উত্তরকন্যায় কোচবিহার, দার্জিলিং, কালিংপং সব জেলার কর্তাদের সাথে বৈঠক হয়েছে, আর সেখানেই এই বিষয়ে কথা বলেছেন তিনি। এদিকে গতকাল তিনি জলপাইগুড়ি মেডিক্যাল কলেজের ভিত্তি স্থাপন করেছেন, আর বাগডোগরা বিমানবন্দরকে প্রসারিত করার জন্য ১০৪ একর জমি ধার্য্য করা হয়েছে বলে জানায় মুখ্যমন্ত্রী।

রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী জানায় আসলে ডিসেম্বর থেকেই ইউ জিসির কথা মতো স্নাতক ও স্নাতকোত্তর দের আংশিকভাবে ক্লাস নেওয়া হবে। ইতিমধ্যে সমস্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য্য দের সাথে বৈঠক করেছেন শিক্ষা মন্ত্রী।তবে শিক্ষাবর্ষ শুরু হয়ে গেছে ঠিকই কিন্তু তাই বলে স্যানিটাইজ ছাড়া কোনোভাবেই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান চালু করা যাবে না। এর জন্য মুখ্যমন্ত্রীর কাছে সার্বিক প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে, সরকারের তরফ থেকে বলা হয়েছে সময় মতো সব কিছুই জানিয়ে দেওয়া হবে।