সবার আগে দেশের নিরাপত্তা, আমেরিকায় টিকটকের চুক্তি মানতে নারাজ ট্রাম্প

আমেরিকার কোনো কোম্পানির সাথে চীনের ভিডিও মেকিং অ্যাপ সংস্থা টিকটকের কোনো রকম চুক্তি হোক, তা একেবারেই মেনে নিতে পারছেন না আমেরিকান প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ট্রাম্পের বক্তব্য, চীনের টিক টক অ্যাপটি একসময় গ্রাহকের তথ্য চুরি করেছে। ব্যবহারকারীদের একান্ত গোপনীয় তথ্য চীনের কমিউনিস্ট পার্টির কাছে পৌঁছে দিয়েছে। যে অ্যাপ এক সময় এরকম দ্বিচারিতা করেছে, ভবিষ্যতেও যে এরকম কাজ আবার করবে না তার কি গ্যারান্টি আছে? প্রশ্ন তুলেছেন ট্রাম্প।

উল্লেখ্য, গত রবিবার মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াল স্ট্রিট জার্নালের রিপোর্ট থেকে জানা যায়, টিকটকের নিলামের জন্য টিকটকের মালিকানাধীন সংস্থা বাইট ডান্স কোম্পানির সাথে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ওরাকল কোম্পানির চুক্তি হয়েছে। আমেরিকায় টিকটক কেনার লড়াইয়ে প্রথম থেকেই আগ্রহ প্রকাশ করেছিলেন মাইক্রোসফট কোম্পানির কর্ণধার সত্য নাদেল্লা। তবে নিলামে ওরাকল কোম্পানির কাছে হেরে যায় মাইক্রোসফট।

বাইটড্যান্স কোম্পানির তরফ থেকে জানানো হয়েছে, ওরাকল কোম্পানির সাথেই টিকটক বিক্রি সংক্রান্ত চুক্তি স্বাক্ষরিত করতে চায় তারা। এজন্য আগে সরকারি অনুমোদন প্রয়োজন।এ প্রসঙ্গে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প টিকটকের বিশ্বাসযোগ্যতা সম্পর্কে প্রশ্ন তুলেছেন। তার দাবি অনুযায়ী,একটা কোম্পানি ভারতীয় গ্রাহকদের তথ্য চুরি করে নিজ দেশে পাচার করেছে। ভবিষ্যতে আমেরিকার ক্ষেত্রেও এমনটা হতে পারে। তাই তিনি আগে এই চুক্তির সমস্ত খুঁটিনাটি তথ্য পর্যালোচনা করতে চান।

মার্কিন প্রেসিডেন্টের সাফ বক্তব্য, এতদিন মার্কিন ইউজারদের একান্ত গোপনীয় তথ্য, এমনকি ব্যবসা-বাণিজ্য, তথ্যপ্রযুক্তি সংক্রান্ত বিভিন্ন তথ্যের ওপর নজরদারি চালিয়েছে টিকটক। ব্যবহারকারীদের লোকেশন ডেটা, সার্চ হিস্ট্রি, ব্রাউজিং হিস্ট্রি সহ সমস্ত তথ্য রয়েছে টিকটকের নখদর্পণে। এমনকি আমেরিকার প্রেসিডেন্ট নির্বাচনকেও প্রভাবিত করতে চেয়েছে টিকটক। তাই টিক টকের বিশ্বাসযোগ্যতা সম্পর্কে প্রশ্ন থেকেই যাচ্ছে।