কৃষকদের জন্য ধুমধাম করে উদ্বোধন করা প্রকল্প বন্ধ প্রায় ২ বছর, শুরু রাজনৈতিক জল্পনা

একুশের নির্বাচনী লড়াইয়ে বিরোধীদের টেক্কা দিয়ে নিজের আসন ধরে রাখার লক্ষ্যে রাজ্য সরকারের একাধিক প্রকল্পের সম্প্রতি শুভ উদ্বোধন হয়েছে। স্বাস্থ্য ক্ষেত্র, কর্মক্ষেত্র, শিক্ষাক্ষেত্রে একাধিক জনকল্যাণমুখী প্রকল্প এবং পরিকল্পনার শিলান্যাস করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। তবে আজ থেকে প্রায় দুই বছর আগে চালু হওয়া “আমার ফসল আমার গাড়ি” প্রকল্পের গতি কিন্তু অনেক আগেই থমকে গিয়েছে বাংলায়। পশ্চিম বর্ধমান-সহ গোটা রাজ্যেই প্রকল্পটি চালু করা যায়নি।

এ প্রসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কৃষি উপদেষ্টা প্রদীপ মজুমদারের সাফাই, কৃষকরা এই প্রকল্পটিকে নিয়ে তেমন আগ্রহ দেখাননি। যে কারণে প্রকল্পটি বাংলার বুকে চালু করা যায়নি। এদিকে রাজ্য সরকারের ওয়েবসাইটে কিন্তু এখনো জ্বলজ্বল করছে “আমার ফসল আমার গাড়ি” প্রকল্পের নামটি। শুধু কৃষকদের তরফ থেকে আবেদনপত্র জমা পড়ছে না বলেই প্রকল্পটি চালু করা সম্ভব হয়নি রাজ্যে।

তবে রাজ্য সরকারের তরফের এমন সাফাই কিন্তু বিরোধীরা মানতে রাজি নয়। তাদের পাল্টা দাবি, মমতা সরকারের আমলে এ রাজ্যে অনেক প্রকল্পেরই ঢাকঢোল পিটিয়ে উদ্বোধন হয়। তবে সেই পরিকল্পনাগুলি বাস্তবায়িত করা সম্ভব হয় না। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, উক্ত প্রকল্পের আওতায় রাজ্যের চাষিরা নিজস্ব একটি করে ভ্যান পেতেন। যে ভ্যান ব্যবহার করে তারা নিজেদের ফসল এবং আনাজপাতি নিজেরাই বাজারে নিয়ে যেতে পারতেন।

এছাড়াও তাদের জন্য কিছু ভর্তুকির ব্যবস্থাও রাখা হয়েছিল। তবে ২০১৯-২০ এবং ২০২০-২১ অর্থবর্ষে এই প্রকল্পের সুবিধা মেলেনি। জেলা কৃষি বিপণনী দপ্তরের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, ২০১৭-১৮ ও ২০১৮-১৯ অর্থবর্ষে এই প্রকল্পে উপভোক্তার সংখ্যা ছিল মাত্র ৩৮ জন। আবেদন কম জমা পড়াতে এখনো এই প্রকল্পের সুযোগ থেকে বঞ্চিত রয়েছেন বাংলার কৃষকরা।