কোনও পোস্টের মাধ্যমে বিদ্বেষ ছড়ালেই কড়া ব্যবস্থা, বড় পদক্ষেপ নিল ফেসবুক

জনপ্রিয় সোশাল প্লাটফর্ম ফেসবুকের বিরুদ্ধে হিংসা, বিদ্বেষ মূলক লেখা, ছবি, ভিডিও, কার্টুন পোস্ট করার অভিযোগ ইতিপূর্বে বহুবার উঠেছে। বিশেষ করে বিশ্ব রাজনীতির প্রেক্ষাপটে পরোক্ষে বারবার অংশগ্রহণ করছে ফেসবুক, এমনটাই দাবি সমালোচকদের। এবার সমস্ত অভিযোগের বিরুদ্ধে সাফাই দিতে নামল ফেসবুক। ফেসবুক কর্তৃপক্ষের দাবি, ইতিমধ্যেই ভুয়ো তথ্য, বিদ্বেষ মূলক বার্তা সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়ানোর অভিযোগে বহু সন্দেহজনক একাউন্ট ডিলিট করা হয়েছে।

ফেসবুক জানিয়েছে, ইতিপূর্বে যখনই এই ধরনের কোনো অনভিপ্রেত পোস্ট করা হয়েছে, তখনই তা ডিলিট করেছে কর্তৃপক্ষ। সমালোচকদের চাপের মুখে পড়ে কর্তৃপক্ষের তরফ থেকে এমনটাই বিবৃতি দেওয়া হয়েছে। উল্লেখ্য, বিদ্বেষ মূলক পোস্টগুলির ক্ষেত্রে ফেসবুক কোনো উপযুক্ত পদক্ষেপ গ্রহণ করছে না, এমন অভিযোগ বারবার উঠেছে। বিশ্বের প্রতিটি দেশ থেকেই এই এক বিষয় নিয়ে ফেসবুকের বিরুদ্ধে গাফিলতির অভিযোগ তোলা হয়েছে।

চাপের মুখে পড়েই কার্যত কিছুটা নতি স্বীকার করতে বাধ্য হয়েছে ফেসবুক। তাই সম্প্রতি আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রের ফেসবুক সংস্থার সদর দপ্তর থেকে বিদ্বেষমূলক বক্তব্যের তৃতীয় ত্রৈমাসিকের একটি গড়পড়তা হিসেবে প্রকাশ করা হয়েছে। হিসেব অনুযায়ী, ফেসবুকে প্রতি ১০ হাজার কনটেন্টের মধ্যে ১০-১১টি বিদ্বেষ মূলক পোস্ট রয়েছে। রিপোর্ট বলছে, বিদ্বেষ মূলক পোস্ট গুলির বিরুদ্ধে যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে ফেসবুক।

চলতি ত্রৈমাসিকেই ২ কোটি ২১ লক্ষ কনটেন্টের বিরুদ্ধে উপযুক্ত পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে, এমনটাই দাবি করেছে ফেসবুক। উস্কানিমূলক পোস্ট গুলিকে ডিলিট করে দেওয়া হচ্ছে। সারা বিশ্বজুড়ে ইতিমধ্যেই বিদ্বেষ সৃষ্টিকারী লক্ষাধিক অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি একাউন্টধারীদের কার্যকলাপে কিছু অস্বচ্ছতার প্রকাশ পেলেই তাকে সতর্ক করা হচ্ছে। এরকমই একাধিক পদক্ষেপের রিপোর্ট পেশ করেছে ফেসবুক। কিন্তু তাতেও সমালোচকদের মুখ বন্ধ করা যাচ্ছে না।