দীপিকার অবসাদ প্রসঙ্গে মুখ খুললেন রণবীর, তুলে ধরলেন নায়িকার জীবনের গোপন সত্য

২০১২ সালে মুক্তি পেয়েছিল ‘ককটেল’ ছবিটি। এই ছবির প্রসঙ্গে দীপিকা পাড়ুকোন বলেন, সেই ছবিই ছিল তাঁর জীবনের অন্যতম ইউ টার্ন। এই ছবি জীবন সম্পর্কে তার দৃষ্টিভঙ্গি বদলে দিয়েছে। একটি শো-তে দীপিকা তাঁর তাঁর জীবনের অভিজ্ঞতা শেয়ার করেন। শো-তে উপস্থিত ছিলেন রণবীর সিং এবং ইমতিয়াজ আলি। দীপিকা বলেন, তাঁর মনে হয় তাঁর একটু চুপচাপ হওয়াটা তাঁর পথের কাঁটা হয়ে দাঁড়াচ্ছিল।

নিজেকে জাহির করা, মন খুলে আত্মপ্রকাশ করার সুযোগটা ক্যামেরার সামনে তিনি পেয়েছি ককটেল ছবিতে। এটা এমন একটা ছবি যেখানে তিনি ক্যামেরার সামনে প্রচন্ড রকম আহত, হতাশাগ্রস্ত হিসাবে নিজেকে তুলে ধরেছেন। সেই আনন্দটা যখন তিনি অনুভব করতে পারলেন, তারপর আর তাঁকে পিছন ফিরে তাকাতে হয়নি। রণবীর বলেন, দীপিকা নিজের জীবনে একটা বড়সড় আবেগের চড়াই উতরাইয়ের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছিলেন। সেটা দীপিকা হয়তো নিজেও বুঝতে পারছিলেন না।

তবে এই সমস্যাটাই পর্দায় ওর অভিনয় দক্ষতাকে আরও ক্ষুরধার করেছিল। সেই যন্ত্রণার প্রতিফলন ওর পারফরম্যান্সে ঘটতে শুরু করে। অবসাদের সঙ্গে দীপিকার লড়াই নিয়ে রণবীর আরও বলেন, এটা একটা ভয়ঙ্কর অভিজ্ঞতা, দীপিকা হঠাৎ অজ্ঞান হয়ে পড়ে গিয়েছিল। জ্ঞান ফেরার পর জোরে জোরে চিৎকার শুরু করেন। প্রসঙ্গত, রণবীর কপুরের সঙ্গে সম্পর্ক ভেঙে যাওয়ার পরে অবসাদের শিকার হয়েছিলেন দীপিকা। পরবর্তীকালে তাঁর জীবনে রণবীর সিং আসেন। বর্তমানে তাঁরা বিবাহিত।