ফেব্রুয়ারি থেকেই শুরু হতে চলেছে প্র্যাকটিক্যাল ক্লাস, ৩ মাসের সিলেবাস শেষ করা হবে ১০ দিনেই

বিগত প্রায় ১১ মাস ধরে রাজ্যে সকল স্কুল, কলেজ, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। এই কয়েক মাসে ছাত্র-ছাত্রীরা প্রভুত লোকসানের সম্মুখীন হয়েছেন। অনলাইন ক্লাসের মাধ্যমে পরিস্থিতি কিছুটা সামাল দেওয়ার চেষ্টা চলছে। তবে হাতে-কলমের ক্লাসগুলি নিয়েই সমস্যা রয়েছে। প্র্যাকটিক্যাল ক্লাস গুলি অনলাইনে করানো সম্ভব নয়। এমতাবস্থায় এক অভিনব উদ্যোগ গ্রহণ করেছে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়।

কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের তরফ থেকে গৃহীত সিদ্ধান্ত অনুসারে বেশ কয়েকটি বিভাগের স্নাতকোত্তর ও গবেষক পড়ুয়াদের হাতে-কলমের ক্লাসগুলি আগামী ফেব্রুয়ারি মাসের প্রথম সপ্তাহ থেকেই শুরু করা হবে। এক্ষেত্রে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ব্যাচ ভিত্তিক পদ্ধতিতে প্র্যাকটিক্যাল ক্লাস করানোর কথা ভেবেছে। একেকটি ব্যাচের পড়ুয়ারা ১০-১২ দিন টানা দিন-রাত এক করে ক্লাস করবেন। এক ব্যাচের ক্লাস শেষ হওয়ার পর অপর ব্যাচের ক্লাস শুরু হবে।

এভাবেই কার্যত তিন মাসের প্রাক্টিক্যাল ক্লাস ১০-১২ দিনের মধ্যেই শেষ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, ছাত্র-ছাত্রীরাও কর্তৃপক্ষের এই সিদ্ধান্তে খুশি। তারা জানাচ্ছেন তারা তাদের আত্মীয়, পরিজনদের বাড়িতে থেকেই ক্লাস করতে পারবেন। হোস্টেল আপাতত খোলা হচ্ছে না। স্নাতকোত্তর এবং গবেষক স্তরের পড়ুয়াদের এ সংক্রান্ত এসএমএস পাঠানো হয়েছে।

কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, করোনা সংক্রান্ত সমস্ত স্বাস্থ্যবিধি মেনেই প্রাক্টিক্যাল ক্লাস করানো হবে। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, রাজ্য সরকারের অনুমোদন মিললে আগামী ফেব্রুয়ারি মাস থেকেই স্কুলের পাঠক্রম শুরু হতে পারে। তবে স্কুল-কলেজের পাঠক্রম শুরু করার ক্ষেত্রে এখনো কোনো বিশেষ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়নি। এমতাবস্থায় ছাত্র-ছাত্রী এবং অধ্যাপকরা মনে করছেন পড়ুয়াদের লোকসান এড়াতে দ্রুত প্রাক্টিক্যাল ক্লাস শুরু হওয়া উচিত।