ইমরান খানের পদত্যাগের দাবিতে উত্তাল পাকিস্তান, প্রবল বিক্ষোভ অসংখ্য মানুষের

বিরোধীদের নেতৃত্বে পাকিস্তানে ইমরান খানের সরকারের বিরুদ্ধে পথে নেমেছেন অসংখ্য মানুষ। “অবিলম্বে ইমরান খানকে উৎখাত করা হোক” এই দাবি নিয়ে চলছে একের পর এক সভা। দেশের পরিস্থিতি, ক্রমবর্ধমান মূল্যবৃদ্ধি, বেকারত্বের সমস্যা মেটাতে ব্যর্থ ইমরান খানের সরকার, এই অভিযোগের ভিত্তিতে বিক্ষোভ প্রদর্শন করছেন বিরোধীরা। পাশাপাশি, ক্ষমতায় আসা নিয়ে ইমরানের বিরুদ্ধে ছলনার অভিযোগ উঠছে।

বিরোধী রাজনৈতিক দলের অভিযোগ, পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর ষড়যন্ত্রে দেশের শাসনভার গিয়ে পৌঁছেছে ইমরান খানের কাঁধে। যা সামলাতে তিনি ব্যর্থ। পাশাপাশি, ইমরান খান পাক সেনাবাহিনীর হাতের পুতুলে পরিণত হয়েছে বলে দাবি করছেন তারা। বিরোধীরা ইমরান খানের সরকারকে সরাসরি পাকিস্তানের গুপ্তচর সংস্থা আইএসআই ও পাক সেনাবাহিনীর চাকর বলে সম্বোধন করেছেন।

নওয়াজ শরিফের নেতৃত্বাধীন পাকিস্তান মুসলিম লিগ, পাকিস্তান পিপলস পার্টি ও জমিয়েত উলেমা-ই-ইসলাম-ফাজি, এই তিনটি প্রধান বিরোধী দলের ডাকে শুক্রবার গুজরানওয়ালা স্টেডিয়ামে একটি জমায়াতের ব্যবস্থা করা হয়। এই জমায়াতে মানুষের ভিড় ছিল চোখে পড়ার মতো। কয়েক হাজার অংশগ্রহণকারী একযোগে অভিযোগ জানাতে থাকেন, ২০১৮ সালে কারচুপি করে পাক সেনাবাহিনী ইমরান খানকে প্রধানমন্ত্রীর নির্বাচনে জিতিয়েছে।

তবে বিরোধীদের এই কার্যকলাপে একটুও বিচলিত নন ইমরান খান। তার পাল্টা দাবি, বিরোধী দলের নেতাদের কারচুপি ধরে ফেলেছেন তিনি। তাদের বিরুদ্ধে উপযুক্ত পদক্ষেপ গ্রহণ করার ফলাফল হিসেবেই বিরোধীরা সাধারণ মানুষকে তার বিরুদ্ধে উস্কানোর চেষ্টা করছে। পাশাপাশি, দুর্নীতি করে নির্বাচনে জেতার অভিযোগও পুরোপুরি ভিত্তিহীন বলেই দাবি করেছেন তিনি।