OMG: এক কাপ চায়ের দাম হাজার টাকা, কলকাতাতেই আছে সেই দোকান, জানুন ঠিকানা

বাঙালির আর কোনো নেশা থাকুক বা না থাকুক, চায়ের প্রতি টান কিন্তু বাঙ্গালীর বহু পুরনো। এই তরল ছাড়া যেন দিন শুরুই হতে চায় না। সকালে ঘুম ভেঙে উঠতে, কাজের ফাঁকে অলসতা কাটাতে এক কাপ চায়ের জুড়ি মেলা ভার। চা প্রেমীদের জন্য বাজারে হরেক রকমের চা রয়েছে। তবে আপনি যদি প্রকৃত অর্থেই চা প্রেমী হয়ে থাকেন তাহলে আপনার জন্য রয়েছে মুকুন্দপুরের “নির্জাস”, যেখানে আপনি প্রায় একশো রকমের চা পেয়ে যেতে পারেন।

মুকুন্দপুরের বাসিন্দা পার্থপ্রতিম গঙ্গোপাধ্যায় এই পানীয়টিকে কেন্দ্র করেই গড়ে তুলেছেন একটি ব্যবসা। সেজন্য মুকুন্দপুরে “নির্জাস” নামক ছোট্ট একটি দোকানও খুলে ফেলেছেন তিনি। এখানে ১২ টাকা থেকে শুরু করে ১০০০ টাকা পর্যন্ত চা পাওয়া যাবে। অর্থাৎ আপনি চাইলে এক কাপ চায়ের জন্য ১০০০ টাকা অব্দি খরচ করতে পারেন।

মাথার উপর শুধু ছাতা এবং তার নিচে কয়েকটি প্লাস্টিকের চেয়ার পেতেই দোকান খুলে ফেলেছেন পার্থপ্রতিম গঙ্গোপাধ্যায়। তার কাছে রয়েছে প্রায় ১০০ রকমের চা যার মধ্যে সবথেকে দামি চায়ের প্রতি কেজির দাম প্রায় তিন লক্ষ টাকা। এই দামি চা যদি ওই দোকানে বসে খেতে চান তাহলে প্রতি কাপের দাম পড়বে ১০০০ টাকা। অবশ্য এর থেকে কম দামের চাও রয়েছে। ১২ টাকা প্রতি কাপ থেকে শুরু হচ্ছে এই অফার।

সিলভার নিডেল টি, ল্যাভেন্ডার টি, হিবিকাস টি, ওয়াইন টি, তুলসি জিনজার টি, তিস্তা ভ্যালি টি-সহ একাধিক চা রয়েছে পার্থপ্রতিমবাবুর কাছে। একসময় তিনি চাকরি করতেন। তবে চাকরি থেকে ব্যবসা করার প্রতিই তার ঝোঁক ছিল বেশি। তাই চাকরি ছেড়ে দিয়ে শুরু করলেন ব্যবসা। বাঙালি সর্বাধিক প্রিয় পানীয়কেই করলেন ব্যবসার মূলধন। এখন তার ব্যবসা চলছে রমরমিয়ে।