ফু’লশ’য্যা’র রা’তেই হা’র মেনে নিয়েছিলেন খিলাড়ি কুমার, জানুন কি করেছিলেন টুইঙ্কেল অক্ষয়ের সাথে

বলিউডের খিলাড়ি বলতে আমরা চিনি অক্ষয় কুমারকে। আজ 50 বছর বয়সে এসেও তার মতো মানুষ খুব কম মানুষের মধ্যে রয়েছে। চিরকাল তিনি নিউ কামারদের টেক্কা দিয়েছেন। তার অভিনয় দক্ষতা খুব সহজে মুগ্ধ করতে পারে সকলকে। বহু নায়িকার সঙ্গে প্রেম করলেও অবশেষে তিনি বিয়ে করেন টুইংকেল খান্না কে। সম্প্রতি তার নিজের ছবি প্রচার করতে এসে কাপিল শর্মা শো তে বেশ কিছু কথা বলেছিলেন অক্ষয় কুমার।

রিয়্যালিটি শোতে এসে স্ত্রীকে নিয়ে একটি গোপন তথ্য ফাঁস করলেন অক্ষয় কুমার। বিয়ের পর ফুলশয্যার সিক্রেট পাস করতেই শোরগোল পড়ে গেল সোশ্যাল মিডিয়াতে। অক্ষয় কুমারকে যখন কপিল শর্মা প্রশ্ন করেন যে, তিনি কি রাজার মতো জীবন যাপন করে, তখন তিনি উত্তর দেন, না তিনি কখনোই রাজার মতো জীবনযাপন করেন না।
তারপর যখন অক্ষয় কুমার কে জিজ্ঞাসা করা হয়েছে, বাড়িতে যদি বিবাদ লাগে তাহলে আপনাদের মধ্যে কে জয়ী হয়? তখন অক্ষয় কুমার সাপটা জবাব দেন যে অবশ্যই টুইংকেল।

তিনি জানিয়েছেন যে, বিয়ের প্রথম রাতে তিনি বুঝতে পেরেছিলেন যে, তিনি কোনোদিন জিততে পারবেন না। আমরা হয়তো সকলেই জানি যে, অক্ষয় যখন টুইঙ্কেলকে বিয়ের প্রস্তাব দেন তখন টুইংকেল বলেছিল যে, তার ছবি যদি ফ্লপ হয় তখন তিনি বিয়ে করবেন অক্ষয় কুমারকে।

তারপর রিলিজ হয় টুইংকেল খান্নার সিনেমা মেলা। সেই সিনেমা বক্স অফিসে মুখ থুবড়ে পড়ে। তার পরের ঘটনা আমাদের কাছে অজানা নয়। তারপর থেকে আজ পর্যন্ত তাদের বৈবাহিক জীবনে কোন রকম সমস্যা দেখা যায়নি। এ সময় তারা বিয়ের সিদ্ধান্ত নেননি, কিন্তু কিছুদিন একসাথে থাকার কথাটা বুঝতে পেরেছিলেন তারা একে অপরের সাথে থাকতে পারবেন। তখনই তিনি বিয়ের সিদ্ধান্ত নিয়ে নেন।

বলিউডের শিল্পা শেট্টি থেকে আরম্ভ করে রাবিনা ট্যান্ডন, সকলের সঙ্গেই জড়িয়ে পড়েছিলেন অক্ষয় কুমার। কিন্তু সবাইকে দূরে সরিয়ে দেখে অবশেষে তিনি সিদ্ধান্ত নেন যে, টুইংকেল খান্নাকে অর্ধাঙ্গিনী হিসাবে গ্রহণ করবেন। তারপর থেকে আজ পর্যন্ত বাড়িতে সব সময় রাজেশ খান্নার একমাত্র মেয়ের কথা চলে, তার একমাত্র অনুগত ভক্ত হলেন অক্ষয় কুমার।