জানকি জয়ন্তী: দেবী সীতার এভাবে আরাধনা করলে জীবনে নেমে আসবে সুখ, কষ্ট বিদায় নেবে তৎক্ষণাৎ

সীতার জন্মদিনটিকে আমরা বিশেষ দিন হিসেবে মানি এবং এটি একটি শুভ দিন। এই দিনটিকে অনেকেই সীতা অষ্টমী বলে। ওই দিন সীতাকে রাজা জনক পেয়েছিলেন কিন্তু পঞ্জিকায় সীতাকে কোন দিন পাওয়া গেছিল সেই নিয়ে যথেষ্ট তর্ক বিতর্ক রয়েছে। অনেকে বলেন যে, ফাল্গুন মাসের সময় যে কৃষ্ণপক্ষের অষ্টমী তিথি থাকে সেই দিনই হল সীতার জন্ম দিন অর্থাৎ সীতা অষ্টমী দিনটিকে বলে, অনেকে আবার মনে করেন যে মাঘ মাসের কৃষ্ণপক্ষতে সীতাকে পাওয়া গিয়েছিল এই নিয়ে যথেষ্ট মতভেদ রয়েছে সীতার জন্মদিন উদযাপন করার বিষয়ে সীতার জন্ম দিন নিয়ে মহারাষ্ট্র এবং দেশের দক্ষিণপ্রান্তে বেশ জনপ্রিয় উৎসব হয়ে থাকে।

কিন্তু কিভাবে জন্মদিনের ব্রত পালন করলে আপনার জীবনে আসবে সুখ-স্বাচ্ছন্দ সেটাই জেনে নিন। পঞ্জিকার মত অনুসারে সীতার জন্ম তিথি ফাল্গুন মাসের কৃষ্ণপক্ষের অষ্টমী তিথিতে ১৬ ই মার্চ ঠিক সন্ধ্যে ৬.১০ শেষ হয়ে যাচ্ছে অতএব তার আগে আপনাকে জন্মদিনের ব্রত পালন করতে হবে।

সীতার জন্ম দিনের এই ব্রত পালন করলে বিবাহিত জীবনে আসবে সুখ এবং আপনার স্বামী লাভ করতে পারে দীর্ঘ আয়ু। এই উপাসনা করতে হবে আপনাকে কিভাবে সে বিষয়ে জেনে নিন।

অষ্টমী তিথি দিন সকাল বেলায় আপনাকে স্নান সেরে শুদ্ধভাবে উপবাস করতে হবে এবং মা সীতার পছন্দের রং হল হলুদ এবং সেইদিন আপনাকে হলুদ রঙের ওপর বিশেষ নজর রাখতে হবে সীতা মায়ের ছবির ওপর আপনাকে হলুদ এবং বিশেষ করে চন্দনের ফোটা দিতে হবে। হলুদ ফুল হলুদ পোশাক সিঁদুর সহ আরো ১৬ টি জিনিস আপনাকে সীতা মাকে দিতে হবে। ধুনো ধূপ দিয়ে আরতী করতে হবে।