চিনের উপর কড়া নজরদারি, দুর্গম পথ ট্রায়ালে সফল ভারতের কপ্টারের

এই সময়ে ভারতীয় বায়ুসেনাকে এক দারুণ হেলিকপ্টার উপহার দিয়েছে হিন্দুস্থান এয়ারোনেটিকস লিমিটেড। কারণ সম্প্রতি তারা একটি এমন হেলিকপ্টার তৈরী করেছে যা কিনা লাইট ইউটিলিটি হেলিকপ্টার, যে কিনা খুব সহজেই শুষ্ক তীব্র ও দাবদাহের মধ্যে সমান দক্ষতায় কাজ করতে পারে। এখানেই কিন্তু শেষ না, এই হেলিকপ্টার হিমালয়ের দুর্গম পার্বত্য অঞ্চলে সেনাদের সাহায্য করতে একেবারে তৈরী।

আর সেটা দেখার জন্যই গতকাল বুধবার এই হ্যালের তৈরী হেলকপ্টার, তার শেষ ট্রায়ালশেষ করেছে। যা কিনা ছিল ১০ দিন ধরে দৌলতাবাগ ওলডির উচু খাড়াইতে। আর সেখানে একেবারে সফলভাবে ট্রায়াল সম্পন্ন করেছে এই এল ইউ এইচকে। এই ট্রায়াল নিয়ে হ্যালের তরফ থেকে স্পষ্ট ভাবেই জানানো হয় ৩৩০০ মিটার উচ্চতায় এই হেলিকপ্টারের ট্রায়াল চলছিল। আসলে প্রথম থেকে একেবারে শেষ পর্যন্ত সমস্তটাই ক্ষতিয়ে দেখে নেওয়া হচ্ছিল।

সব দিক থেকেই এই হেলকপ্টার ওড়ার জন্য প্রস্তুত কিনা।আসলে উচ্চতায় ও তীব্র তাপমাত্রায়, কেমন পারদর্শী এই হেলিকপ্টার। সব কিছুতেই সবুজ সংকেত পাওয়ার পরেই এডভান্স ল্যান্ডিং শেষ করা হয় ৫৫০০ মিটার উচুতে, যেটা কিনা সমুদ্র পৃষ্ঠ থেকে ৫৫০০ মিটার উচ্চতায়। এখন সব দিক থ্বেকেই যখন সবুজ সংকেত পাওয়া গেছে, তখন আর বেশী দেরি নেই। আগামী কয়েকদিনের মধ্যেই ভারতীয় সেনাতে যোগ দিতে চলেছে হ্যালের এই হেলিকপ্টার।

এই নিয়ে হ্যালের ডিরেক্টার জানিয়েছেন, আসলে এই হেলিকপ্টারের পারফরমেন্স দারুণ, এখন সহজেই ব্যবহার করা যাবে এল ইউ এইচ। এই হেলিকপ্টার গুলোকে, কিন্তু কিছুদিন আগেই কাজে লাগানো হয়েছে বলে জানিয়েছে সেনাবাহিনী। কারণ পূর্ব লাদাখে এই উত্তেজনার সময়ে চিনের ওপরে নজর রাখতেই এই ধরনের ২ টি হেলিকপ্টার ব্যবহার করা হয়েছে। আসলে এই হেলিকপ্টার অনেকটাই হালকা, যা কিনা একেবারে পাহাড়ের উচ্চতায় নজর দারী চালানোর জনয় দারুণ ভাবে সক্ষম।