ফিল্মে যৌ’ন দৃ’শ্যে নি’র্দে’শ’না দেওয়াই হলো তার মূ’ল কা’জ, জেনে নিন কে এই মহিলা

১৯৯২ সালে তৈরি হয় ব্যাসিক ইন্সটিঙ্কট সিনেমা। সেই সিনেমা তৈরি করার সময় একটি দৃশ্যে অভিনেত্রী শ্যারন স্টোনের সঙ্গে চালাকি করা হয়েছিল এই বলে তিনি অভিযোগ জানিয়ে ছিলেন। দৃশ্যে পুলিশ যখন জিজ্ঞাসা করছিলেন তখন তিনি সেই সময় একটি পা আরেক পায়ের ওপর তুলে বসে ছিলেন। এবং একপর্যায়ে তিনি একটি পা তুলে নেন। চালাকি করে অন্তর বস্ত্র খুলে ফেলা হয়েছিল এই দৃশ্যটি করার আগে। সেইখানে নাকি আলো প্রতিফলিত হবে এবং দর্শকরা কিছুই দেখতে পাবেন না এই কথা বলা হয়েছিল। এবং পরে গোটা দুনিয়ার সাথে তিনিও দেখলেন যে বিশ্বের অনেকেই অনেককেই দেখতে পেয়েছেন।

এই ঘটনাটি কি কোনভাবে এড়ানো যেত? এই প্রশ্নের উত্তরে আস্থা খান বলেছেন হ্যাঁ খুব সহজেই। ভারতের প্রথম এবং একমাত্র ইন্টিমেসি কো-অর্ডিনেটর ছিলেন তিনি যিনি নির্দেশক হিসেবে কাজ করে থাকেন। তিনি বলেন আমি যদি সেখানে থাকতাম তাহলে আমি তাকে স্কিন কালার এর সাথে ম্যাচ করে দেওয়ার মত অন্তর্গত ভরিয়ে দিতাম। দ্য ডিউজ সিরিজের জন্য এই প্রথম কোনো ইন্টিমেসি কো-অর্ডিনেটর নিয়োগের কথা বলে থাকেন চলচ্চিত্র নির্মাণকারী নেটওয়ার্ক এইচবিও ২০১৮ সালে। সময় তখন ১৯৭০ সাল তখন নিউইয়র্ক এর যৌন পর্ণ শিল্পের ওপর নির্মিত হতো এই সিরিজ। এমিলি মিড অর্থাৎ নায়িকার অনুরোধে ইন্টিমেসি কো-অর্ডিনেটর হিসেবে একজনকে দায়িত্ব দেওয়া হয়। তারপর থেকে বিভিন্ন পরিচালক-প্রযোজক স্টুডিওতে তাদের তৈরি দৃশ্য ধরনের জন্য। ইন্টিমেসি কো-অর্ডিনেটর হিসেবে কাজে লাগাচ্ছেন ভারতবর্ষে ও এই পরিবর্তনের আবহাওয়া লেগেছে বলে দেখা গিয়েছে।

Aastha Khanna

ভারতবর্ষের মাত্র ২৬ বছর বয়সী ইন্টিমেসি কো-অর্ডিনেটর আস্থা খান বলেছেন তার চারপাশে একজন নৃত্য পরিচালক এবং একজন অ্যাকশন পরিচালকের সঙ্গে তুলনা করা যেতে পারে। যিনি কাজ করবেন সিনেমার জন্য অথবা অন্তরঙ্গ দৃশ্য ধারনের বিষয়। একজন ইন্টিমেসি ঘরে নেতাদের কাজ হচ্ছে যেসব দেশে নগ্নতাকে যৌনঙ্গ কিছু দৃশ্য রয়েছে সেই দৃশ্যে অভিনেতা এবং অভিনেত্রীরাজনৈতিক নিরাপত্তার বিষয়ে নিশ্চিন্ত করা। একজন অভিনেতা অভিনেত্রীর মধ্যে সমন্বয়কারী ভূমিকা পালন করেন একজন ইন্টিমেসি কো-অর্ডিনেটর পরিচালক। সেই সঙ্গে তিনি কিছু পোশাক এবং কিছু জিনিসপত্র সরবরাহ করেন। যার মধ্যে রয়েছে তলপেটের নিচের দিকে নিরাপত্তা দেয় এমন কিছু গার্ড, স্তনের নিপল এর জন্য আবরণ, আঠালো বডি টেপ, এই ডানাটির মতন দেখতে এক ধরনের বালিশ যা পারফরমারদের মাঝখানে রাখা হয় সেক্স করার সময় যৌনাঙ্গ স্পর্শ করে না।

অঞ্জলি সিভারমান মানে একজন মডেল ও অভিনেত্রী তিনি বলেন তিনি আশা খানের উপস্থিতির জন্য অনেক বেশি স্বস্তি পাচ্ছেন। তিনি বলেন তাকে একটি সেক্স বিশ্বে অভিনয় করতে হয়েছিল যা তিনি আগে কখনও করেনি এবং এই দৃশ্যে অভিনয় করার জন্য তাকে আস্থা খান অনেক রকম ভাবে সাহায্য করেন। এবং কাজটি অনেক সহজ হয় সেই দৃশ্যে অভিনয় করার সময় আমার এবং অভিনেতার মাঝখানে ডোনাট নামক দৃষ্টি রাখেন সেই কারণে আমাদের যৌনাঙ্গ স্পর্শ করেনি।
বলিউড অভিনেত্রী পূজা ভাট তিনি বলেন তার অভিনয় জগতে শুরুর সময় তার মা এবং ম্যানেজার ফেটে গিয়ে এরকমই কিছু ইন্টিমেসি কো-অর্ডিনেটর মতন কাজ করতেন।

তবে আস্থা খান বলেছেন তাকে সব সময়ের জন্য স্বাগত জানানো হয় না তার পেছনে একটি প্রধান কারণ হলো অতিরিক্ত খরচ। এছাড়াও একটি কারণ হলো অনেক সময় অনেক পরিচালক এবং প্রযোজক মনে করেন যে তিনি হয়ত তাদের পায়ে পাড়া দেবেন। কিছু পরিবর্তন আসছে তবে ধীরে ধীরে। এই শিল্পে অল্প সংখ্যক কিছু মানুষ আছে যারা নিজেকে পরিবর্তন করতে চায় না তারা সেকেলে। কিন্তু প্রতিপত্তি ও প্রভাবশালী লোকেদের আহত করার ঝুঁকি থাকলেও আমাদের একে অপরের সঙ্গে থাকতে হবে, পাশে দাঁড়াতে হবে এবং সমর্থন করতে হবে।