একতাই বল, মুরগির মতো নিরীহ প্রাণীরাও হয়ে গেলো একজোট

দুর্বলেরা একজোট হলে যে সিংহের মত সবল কেও হার মানিয়ে দিতে পারে, তার প্রমাণ আমরা বারবার পেয়েছি। সেই তালিকায় অন্তর্ভুক্ত হয়েছে মুরগির নাম। মুরগিরা সর্বক্ষণ প্রাণ ভয়ে তটস্থ হয়ে থাকে। গ্রামেগঞ্জে অথবা শিয়ালের কামড়ের ভয়ে দিন কাটাতে হয় তাদের। কিন্তু একজন হলে মুরগি রাও যে পারে শিয়ালকে প্রতিরোধ করতে,তার প্রমাণ পাওয়া গেল উত্তর পূর্ব ফ্রান্সের ব্রিটানির এক কৃষি বিজ্ঞান শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খামারের ঘটনা থেকে। সেই খামারের মুরগিরা শিয়ালের মোকাবিলা করে রীতিমতো ইতিহাস গড়ে তুলল।এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদন থেকে জানা গিয়েছে যে, ও কৃষি বিজ্ঞান শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা আবিষ্কার করেছে যে, তাদের খামারের মুরগি একজোট হয়ে শুধুমাত্র শিয়াল কে প্রতিহত করে নি বরং শিয়ালটি কে মেরে ফেলেছে।

আলোচিত খামারের হেন হাউসটি অটোমেটিক লাইট কন্ট্রোল সিস্টেম দ্বারা পরিচালিত হয়। সূর্যাস্তের সঙ্গে সঙ্গে খাঁচার দরজা নিজে থেকেই বন্ধ হয়ে যায়।খাঁচার দরজা বন্ধ হবার আগেই সন্ধ্যেবেলার একটি শিয়াল মুরগির খাঁচা তে ঢুকে পড়ে। হঠাৎ করেই দরজাটি বন্ধ হয়ে যাওয়ায় শিয়ালটি আর বাইরে বেরিয়ে আসতে পারেনি। এই সময়ে খাঁচার মুরগিরা এক সঙ্গে জোট বেঁধে শিয়ালটির ওপর ঝাঁপিয়ে পড়ে।

সকালে শিয়াল টিকে মৃত অবস্থায় পাওয়া যায় সেই খাঁচা থেকে।সংবাদ সংস্থাকে দেবে একটি সাক্ষাৎকারে ওই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শারমিনের শিক্ষক প্যস্কাল ড্যানিয়েল জানিয়েছেন যে, মুরগিরা ঠুকরে ঠুকরে মেরে ফেলেছে শিয়াল টিকে। দেয়ালে পিঠ ঠেকে গেলে যে কত নিরীহ প্রাণী ও বেপরোয়া হয়ে যেতে পারে, এই ঘটনায় তার প্রত্যক্ষ প্রমাণ।