“৯০ শতাংশ ভোট পাবো”, নন্দীগ্রামে দাঁড়িয়ে হুঙ্কার ছাড়লেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

নন্দীগ্রামের ভোটযুদ্ধকে কেন্দ্র করে রাজ্য রাজনীতি উত্তাল। পশ্চিমবঙ্গের মোস্ট হাই ভোল্টেজ কেন্দ্রটির প্রতি রাজনৈতিক মহলের নজর রয়েছে। আজ দ্বিতীয় দফার নির্বাচনে নন্দীগ্রামে ভোটগ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। তবে এই ভোট পর্বকে কেন্দ্র করে সকাল থেকেই রাজনৈতিক তরজা চলছে। নন্দীগ্রামে ভোটের ক্ষেত্রে কারচুপির বহু অভিযোগ তুলেছে তৃণমূল। তবে আত্মবিশ্বাসী মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এদিনের ভোট পর্ব সম্পন্ন হতেই আত্মপ্রত্যয়ী মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের গলায় শোনা গেল নিশ্চিত জয়ের পূর্বাভাস। মুখ্যমন্ত্রী এদিন জানিয়েছেন, নন্দীগ্রামে ৯০ শতাংশ মানুষের সমর্থন পেয়ে ভোটে জিততে চলেছেন তিনি। তবে এর সঙ্গেই নির্বাচন কমিশনের আচরণ নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন তিনি। প্রসঙ্গত, নন্দীগ্রামে নির্বাচন চলাকালীন বারংবার ছাপ্পা ভোটের অভিযোগ তুলেছে তৃণমূল।

মুখ্যমন্ত্রীর দাবি, এ বিষয়ে তিনি বারংবার নির্বাচন কমিশনের দৃষ্টি আকর্ষণ করলেও কিছুই লাভ হয়নি। কমিশন বিষয়টিতে গুরুত্ব দেয়নি। মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্য অনুসারে, কেন্দ্রীয় বাহিনীর কোনো দোষ তিনি দেখছেন না।কারণ কেন্দ্রীয় বাহিনী উপর মহলের নির্দেশ অনুসারে কাজ করে। এ বিষয়ে সরাসরি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর দিকে আঙুল তুলেছেন তিনি। তবে নির্বাচন কমিশনের আচরণে তিনি দুঃখিত হয়েছেন।

প্রসঙ্গত, নন্দীগ্রামে ভোটে কারচুপি নিয়ে অভিযোগ উঠলে মুখ্যমন্ত্রী বুথের প্রিসাইডিং অফিসারের সঙ্গে কথা বলেন। নির্বাচন কমিশনার সুনীল অরোরাকেও চিঠি মারফত নিজের অভিযোগ জানিয়েছেন তিনি। পাশাপাশি রাজ্যপালের কাছেও তিনি তাঁর অভিযোগ জানিয়েছেন। রাজ্যপাল সব রকম ভাবে সাহায্য করার আশ্বাস দিয়েছেন। তবে মুখ্যমন্ত্রীর ভরসা নন্দীগ্রামের মা-মাটি-মানুষ। তাদের ভরসাতেই নন্দীগ্রামের জয় সম্পর্কে নিশ্চিত মুখ্যমন্ত্রী।