ফের প্রবল বেগে আছড়ে পড়তে পারে ঘূর্ণিঝর ‘গতি’, বড় আপডেট দিল হাওয়া অফিস

যেমন কথা তেমন কাজ, আরস এটাই হতে চলেছে এখন। আসলে আবহাওয়া দপ্তর আগের থেকেই জানিয়েছিল চলতি সপ্তাহের শেষের দিকেই নিম্নচাপ ও ঘূর্ণাবাতের জোড় বৃদ্ধি পাবে আর তার ফলেই রাজ্যের ওপরে ভারী বৃষ্টির প্রভাব প্ররবে। এবার সেই শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় আছড়ে পরতে চলেছে উপকূলে। উত্তর আন্দামান ও বঙ্গোপসাগরে এই নিম্নচাপের অবস্থান, যা কিনা সময়ের সাথে সাথে শক্তি সঞ্চয় করে ছত্তিশগড়, ওড়িশা, অন্ধ্রপ্রদেশ ও গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গের ওপরে আছড়ে পরতে চলেছে।

গত ৩০ সেপ্টেমবর পশ্চিম মধ্য বঙ্গোপসাগরে নিম্নচাপ তৈরী হয়েছিল, আর সেটাই যে শক্তি বৃদ্ধি করে ঘূর্ণিঝড়ে পরিনট হবে সেটা কিন্তু স্পষ্ট। আজ সকাল থেকেই কলকাতার আকাশ মেঘাছন্ন, যার ফলে আর্দ্রতা জনিত অস্বস্তি ও ভ্যাপসা গরম বিরাজ করছে শহর জুড়ে। এই নিম্নচাপ সময়ের সাথে সাথে শক্তিশালী হয়ে উপকূলের জেলাগুলোর ওপরে দুই ২৪ পরগণা, দুই মেদিনীপুর, ঝাড়গ্রাম সব জায়গায় প্রভাব পরবে।

দক্ষিণ বঙ্গের সাথে উত্তরবঙ্গের ওপরে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা। এখন পুজোর আর মাত্র ১০ দিন, তার আগেই এমন বৃষ্টির আশঙ্কা, যেটা বাঙ্গালীদের অনেকটায় চিন্তায় ফেলছে। তবে এখনও স্পষ্ট না যে পুজোর দিন গুলতে বৃষ্টি থাকবে কিনা।