সিরিয়াল-সিনেমা করে আর পেট চালাতে পারছেন না, তাই রাজনীতিতে: চিরঞ্জিত

চারিদিকে অশান্তি, শোরগোল এবং বিক্ষোভের মধ্যেই চলছে এবারের বিধানসভা নির্বাচনের কার্যকলাপ। নিঃসন্দেহে এবার তৃণমূল এবং বিজিপির মধ্যে হচ্ছে জোর টেক্কা। কিন্তু এবারে বিধানসভা নির্বাচন যে কারণে একেবারেই অন্যরকম তাহল টলিউডের বহু কলাকুশলীরা যোগ দিয়েছেন তৃণমূল এবং বিজেপি শিবিরে। আসন্ন নির্বাচনের প্রার্থী তালিকায় জ্বলজ্বল করছে তারকা প্রার্থীদের নাম।

নিত্যদিন কেউ-না-কেউ যোগ দিচ্ছে কোন না কোন দলে। একদিকে যেমন তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন অভিনেত্রী সায়ন্তনী থেকে শুরু করে পরিচালক রাজ চক্রবর্তী, তেমনই বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন পায়েল সরকার থেকে শুরু করে অভিনেতা হিরণ পর্যন্ত। নিঃসন্দেহে এত তারকা এর আগে কখনো যোগ দেয়নি কোন দলে।

তবে এই তারকা প্রার্থীদের এইভাবে রাজনীতিতে যোগ দেওয়া নিয়ে অবশেষে মুখ খুললেন অভিনেতা চিরঞ্জিত। তিনি নিজে তৃণমূলের একজন প্রার্থী। তবে তারকাদের এইভাবে রাজনীতিতে যোগ দেওয়া নিয়ে তাকে প্রশ্ন করায় তিনি বলেন যে, আমাদের বাংলা সিনেমার অবস্থা খুবই খারাপ। কয়েক বছর ধরে সিনেমা হল একেবারেই চলছে না। গত বছর থেকে সিনেমা হলগুলো বন্ধ হয়ে গেছে। তারকার কোন কাজ পাচ্ছেন না বলে অবশেষে বিকল্প পেশা হিসেবে যোগ দিচ্ছেন রাজনীতিতে।

তিনি আরো বলেন যে, যে সমস্ত তারকা বিজেপিতে যোগ দিচ্ছেন, তারা হিন্দি ইন্ডাস্ট্রিতে যাবার জন্য পথ পাকা করে নিচ্ছেন, আর বাকিরা পড়ে থাকছে তৃণমূলে। তবে নিজেও তিনি শাসক দলের প্রার্থী। এর পরেও তার এইভাবে কটাক্ষ করার উদ্দেশ্য হলো বর্তমানে তারকা প্রার্থীদের নামের পেছনে ঢাকা পড়ে যাচ্ছে বেশ কিছু স্বনামধন্য বিধায়কের নাম।

শুনতে পাওয়া যাচ্ছে যে, প্রার্থী তালিকা ঘোষণার আগেই চিরঞ্জিত জানিয়েছিলেন যে, এবারের নির্বাচনে যদি টিকিট না পান, তাহলে তিনি রাজনীতি ছেড়ে দেবেন বলে জানিয়েছিলেন। তবে রাজনীতি ছেড়ে দিলেও বিজেপিতে যোগ দেবেন না বলেও জানিয়েছিলেন তিনি। তবে অবশেষে বারাসতের টিকিট পেয়েছেন তিনি। বর্তমান নির্বাচনে বারাসাতের হয়ে দাঁড়ান চিরঞ্জিত।