করোনার জেরে লকডাউন পরিস্থিতিতে মানুষের পাশে দাঁড়ালো গণজাগরণ মঞ্চ জটেশ্বর ইউনিট

গোটা দেশ জুড়ে করোনা ভাইরাসের আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। ভারতে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ক্রমশ বেড়েই চলছে, বাড়ছে মৃত্যু। এই পরিস্থিতিতে সমস্যায় পড়েছেন দিন আনি দিন খাই গরিব মানুষরা। অনেকেই সাহায্যের জন্য এগিয়ে আসছেন, পাশে দাঁড়াচ্ছেন অনেক স্বেচ্ছাসেবী সংস্থাও। তেমনি সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছে স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা গণজাগরণ মঞ্চ(জটেশ্বর ইউনিট)। এখনও পর্যন্ত মোট ২৪০ টি পরিবারের পাশে দাঁড়াতে পেরেছে এই স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা।

গণজাগরণ মঞ্চ(জটেশ্বর ইউনিট) তেতলিরডাঙ্গা, হেদায়েতনগর, স্কুলপাড়া, ঘাটপার, প্রমোদনগর, কাঁঠালবাড়ি, ডালিমপুর, নবনগর, পালপাড়া, বেলতলীরোড, স্কুলপাড়া, হেদায়েতনগর, বড়দোলা, আলিনগর, হেদায়েতনগর, ধুলাগাঁও, মুন্ডাপাড়া, পূর্ব ব্যাংকান্দি, ফালাকাটা মিল রোড, অমর পল্লী, দেওগাঁও এই এলাকাগুলির মানুষদের পাশে দাঁড়াতে পেরেছে। গণজাগরণ মঞ্চ(জটেশ্বর ইউনিট) এর তরফ থেকে জানানো হয়েছে, জটেশ্বরের বিস্তীর্ণ এলাকায় স্যানিটাইজ করার পরিকল্পনা রয়েছে। পাশাপাশি আরও ১৫০ টি পরিবারের পাশে দাঁড়ানোর পরিকল্পনা রয়েছ বলে জানানো হয়েছে গণজাগরণ মঞ্চ(জটেশ্বর ইউনিট) এর তরফ থেকে।

করোনার বিরুদ্ধে লড়তে মানুষকে সজাগ থাকতে বলা হয়েছে গণজাগরণ মঞ্চ(জটেশ্বর ইউনিট) এর তরফ থেকে। এই স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার তরফ থেকে বলা হয়েছে, “আমাদের জেলা গ্রীন জোনে রয়েছে। তবে আমাদের আরও বেশি সচেতন হতে হবে। সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে কাজ করতে হবে, সবসময় মাস্ক ব্যবহার করতে হবে এবং একটু পর পর হাত সাবান দিয়ে ভালো করে হাত ধুয়ে ফেলতে হবে। এতে সংক্রমিত হবার সম্ভবনা অনেক কম। একটা কথা মনে রাখবেন আপনি সংক্রমিত হলে আপনার পরিবারও সংক্রমিত হবে। তাই নিজের স্বার্থে, নিজের পরিবারের স্বার্থে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে চলুন। আপনি ভালো থাকলে আপনার পরিবারও ভালো থাকবে।”

পাশাপাশি যাঁরা মানুষের পাশে দাঁড়ানোর জন্য গণজাগরণ মঞ্চ(জটেশ্বর ইউনিট) কে আর্থিক সাহায্য করেছেন এবং অন্য কোনো ভাবে এই স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার পাশে দাঁড়িয়েছেন, তাঁদের ধন্যবাদ জানানো হয়েছে গণজাগরণ মঞ্চ(জটেশ্বর ইউনিট) এর পক্ষ থেকে।

সব খবর সরাসরি পড়তে আমাদের WhatsApp  Telegram  Facebook Group যুক্ত হতে ক্লিক করুন