পাকিস্তানকে যুদ্ধবিমান নিয়ে বড় ধাক্কা দিল ফ্রান্স, আরও কোণঠাসা ইমরান সরকার

নিজের পাতা ফাদে এবার নিজেই গিয়ে পরলেন ইমরান খান। একটা সময় ইসলাম ধর্মের অপমান করছেন ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রো, এই কথা শোনা গেছে ইমরান খানের মুখে। এমনকি এর জন্য আন্তর্জাতিক মহলে অভিযোগ জানিয়েছে স্বয়ং ইমরান খান, সাথে পাকিস্তানের রাস্তায় ফরাসি জিনিস বিক্রি বন্ধ ও ব্যবহার না করার ডাক পর্যন্ত উঠেছে। কিন্তু তিনি বুঝতে পারেন নি, এই সব করার ফলে যে তার পাতা ফাদে তিনি নিজেই পরতে চলেছেন।

প্রথম দিকে ফ্রান্সের সরকার কিছু না বললেও এবার তারা পালটা দিয়েছে পাকিস্তানকে। তারা একটি প্রতিবেদনে জানিয়ে দিয়েছে, ফ্রান্সের কাছ থেকে পাকিস্তানের কেনা মিরাজ যুদ্ধবিমান, অগস্টা ৯০ বি ক্লাস ও এয়ার ডিফেন্স সিস্টেমকে উন্নত ও আপডেট করার জন্য কোনোভাবেই সাহায্য করা হবে না। মিরাজ-৩ ও মিরাজ-৫ এই সমস্ত যুদ্ধবিমান গত কয়েকদশকে পাকিস্তান ফ্রান্সের দাসাউ এভিয়েশনের কাছ থেকে কিনেছে, যেটা হয়তো মোট সংখ্যায় ১৫০ র কাছাকাছি।

কিন্তু সংখ্যা এতো থাকলেও তার অর্ধেক বিমান এখন অযান্ত্রিক অবস্থায়। তাই এবার বাকি যুদ্ধবিমানের ইতিমধ্যেই আপডেটের দরকার, কিন্তু পাকিস্তানের বাড়াবড়ি দেখে ফরাসি সরকার স্পষ্ট জানিয়েছে কোনোভাবেই পাকিস্তানকে সাহায্য করা হবে না বিমান উন্নত করার ক্ষেত্রে। শুধু এটাই নয়, সাথে সাবমেরিনের ক্ষেত্রেও একই কথা জানিয়েছে ফরাসি সরকার, তবে এয়ার ডিফেন্স সিস্টেম যেটা ইটালি ও ফ্রান্সের সহযোগে তৈরী, সেটাই এতোদিন ব্যবহার করত পাকিস্তান, কিন্তু সেটাকেও আপগ্রেডের ক্ষেত্রেও না ফ্রান্সের।

দাসাউ এভিয়েশন যারা কিনা ভারতের হাতে তুলে দিয়েছে রাফাল যুদ্ধবিমান, তবে কাতারের কাছেও আছে এই যুদ্ধবিমান, তবে ফ্রান্সের তরফ থেকে স্পষ্ট জানিয়ে দেওয়া হয়েছে কোনোভাবেই পাকিস্তানের টেকনিশিয়ানেরা যাতে রাফালের কাছে যেতে না পারে, তাহলে রাফাল সম্পর্কে অনেক গোপন তথ্যই তাদের হাতে চলে আসবে।যা ভারতের জন্য ভালো হবে না।