প্রথম বিয়ে, ফের দ্বিতীয় বিয়ে, আবার তৃতীয় বিয়ে, এখন চতুর্থবার, জানুন কে সে

ভারতীয় সংবিধান অনুসারে বহুবিবাহ এই দেশে আইনত নিষিদ্ধ। জীবনসঙ্গীর উপস্থিতিতে কেউ দ্বিতীয়বার বিবাহ করতে পারেন না। তবে তার অনুপস্থিতিতে অর্থাৎ ডিভোর্স হয়ে গেলে অথবা জীবনসঙ্গীর মৃত্যু হলে অবশ্য দ্বিতীয় পক্ষের কথা ভাবা চলে ভারতবর্ষে। তবে সেই আইন ভাঙলেন ওড়িশার একজন শিক্ষক। একটি নয় দুটি নয়, এক জীবনে একেবারে চার-চারবার বিয়ের পিঁড়িতে বসে পড়লেন ওই শিক্ষক।

তবে শেষ রক্ষা অবশ্য হয়নি। প্রথম দুই পক্ষ তার এই কার্যকলাপ জানতে পেরেই শিক্ষকের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করে বসেন। যার পরিপ্রেক্ষিতে এ শেষমেষ গ্রেপ্তার করা হয়েছে ওই স্কুল শিক্ষককে। সূত্রের খবর, ওই শিক্ষক ওড়িশার একটি সরকারি স্কুলে শিক্ষকতা করেন। ওড়িশার কটকেই থাকেন তিনি। চার জন মহিলাকে বিয়ে করলেও তিনি কারোকেই এপর্যন্ত ডিভোর্স দেন নি।

পুলিশ সূত্রে খবর, ৪৫ বছর বয়সী ওই শিক্ষক লকডাউনেই দুইবার বিয়ে সেরে ফেলেছেন। দ্বিতীয় পক্ষের স্ত্রীর সঙ্গে এ পর্যন্ত সর্বসাকুল্যে তিন বছর সংসার করেছেন তিনি। এরপর লকডাউনের নয় মাসের মধ্যেই আরো দুইবার বিয়ে করেন ওই শিক্ষক। এই অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে সম্প্রতি তার প্রথম দুই পক্ষের স্ত্রী থানায় তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। সেই মামলার পরিপ্রেক্ষিতেই শেষমেষ গ্রেফতার হতে হয়েছে ওই শিক্ষককে।