শত্রুরা প্রতিশোধ নিতে পাঠাতে পারে “ক’রোনা চিঠি”, হাতে নিলেই বিপদ, সতর্ক করলো ইন্টারপোল

প্রতিশোধের বশবর্তী হয়ে শত্রুপক্ষের তরফ থেকে পাঠানো হতে পারে মারণ ভাইরাস বহনকারী চিঠি। তাই দেশের রাষ্ট্রপ্রধানসহ সমস্ত নেতৃবৃন্দকে অচেনা উৎস থেকে আগত চিঠি সম্পর্কে সতর্ক করেছে ইন্টারপোল। ইন্টারপোলের তরফ থেকে সম্প্রতি একটি সতর্কবার্তায় জানানো হয়েছে, করোনার মত মারন ভাইরাসকেই হাতিয়ার করতে পারে দুষ্কৃতীরা। ভাইরাস যুক্ত চিঠি পাঠানো হতে পারে রাষ্ট্রনায়কদের। বিশ্বের প্রতিটি দেশেই এই সতর্কবার্তা জারি করা হয়েছে।

শত্রুতার বশবর্তী হয়ে দুষ্কৃতীরা করোনা সংক্রমিত ব্যক্তিদের লালা রস থেকে ভাইরাসের নমুনা সংগ্রহ করে তা চিঠির সঙ্গেই পৃথিবীর বিভিন্ন প্রান্তে রাষ্ট্রপ্রধানসহ সাধারণ মানুষের কাছে পৌঁছে দিতে পারে। বিশ্বে সংক্রমণ ছড়িয়ে দেওয়াই তাদের একমাত্র লক্ষ্য। ভারতসহ পৃথিবীর ১৯০টি দেশ এই ষড়যন্ত্রের শিকার হতে পারে, তেমনটাই জানিয়েছে ইন্টারপোল।

বিশেষজ্ঞদের আশঙ্কা, দেশের শত্রু রাষ্ট্রগুলির তরফ থেকে এজাতীয় বিপদজনক চিঠি আসতে পারে। তবে আন্তর্জাতিক শত্রুর তরফ থেকেও এই আক্রমণের সম্ভাবনা উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না। সমস্ত চিঠি থেকেই সাবধান থাকার পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে। ইন্টারপোলের আধিকারিকেরা জানিয়েছেন, পৃথিবীর সমস্ত রাষ্ট্রের রাষ্ট্রনায়কেরা বর্তমানে করোনার বিরুদ্ধে লড়াই চালাচ্ছেন।

রাষ্ট্রনায়কেরাই প্রধানত যে কোন রাষ্ট্রের মূল চালিকাশক্তি। শত্রুরা তাই রাষ্ট্রনায়কদেরই নিশানা করতে পারে। দেশের নিরাপত্তা রক্ষীদের তাই এই বিষয়ে সতর্ক হওয়ার পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে। উল্লেখ্য, করোনাকালেই বিশ্বের বেশ কিছু দেশে অচেনা উৎস থেকে চিঠি আসছিল। সেই চিঠির মধ্যে বেশকিছু অচেনা গাছের বীজ পাঠাচ্ছিল প্রেরণকারী। সন্দেহজনক এই গাছের বীজ থেকে তখনো সতর্ক করে ইন্টারপোল। এই বীজগুলি দেশের শস্য উৎপাদন কারী গাছগুলোকে নষ্ট করে দিতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেন বিশেষজ্ঞরা।