আকাশে শক্তি প্রদর্শন, ভারতীয় বায়ুসেনায় আনুষ্ঠানিক ভাবে যোগ দিলো রাফাল যুদ্ধবিমান

ফাইল ছবি

দীর্ঘ অপেক্ষার পর অবশেষে ঐতিহাসিক মুহূর্তের সাক্ষী থাকলো ভারতের সামরিক বিভাগ। ফ্রান্সের দাসো এভিয়েশন সংস্থার তরফ থেকে প্রাপ্ত ৫টি রাফায়েল যুদ্ধবিমান আনুষ্ঠানিকভাবে ধুমধাম করে ভারতীয় সেনাবাহিনীর সামরিক সরঞ্জামের অন্তর্ভুক্ত হলো। হরিয়ানার আম্বালা বিমানবন্দরের বায়ু সেনা ঘাঁটিতে সকল ধর্মের পূজা সম্পাদনের মাধ্যমে ভারতীয় বায়ুসেনার অন্তর্ভুক্ত হলো রাফায়েল। এদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, ভারত ও ফ্রান্স সরকারের বিশিষ্ট ব্যক্তিত্বরা। ভারতের আমন্ত্রণে সাড়া দিয়ে ফ্রান্সের প্রতিরক্ষা মন্ত্রী ফ্লোরেন্স পার্লে বৃহস্পতিবার সকালেই দিল্লি পৌঁছে যান। উল্লেখ্য, ২০১৭ সালের পর থেকে এই নিয়ে তৃতীয়বার ভারতে এলেন ফ্রান্সের প্রতিরক্ষামন্ত্রী।এদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংও।

প্রধান অতিথি হিসেবে, ফ্রান্স এবং ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রী উপস্থিত ছিলেন। পাশাপাশি, ভারতের চিফ অফ ডিফেন্স স্টাফ বিপিন রাওয়াত, বায়ুসেনার প্রধান এয়ার চিফ মার্শাল আরকে ভাদুরিয়া, প্রচিরক্ষা সচিব ড. অজয় কুমার-সহনানা বিশিষ্ট ব্যাক্তিবর্গ এদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। ফ্রান্সের তরফ থেকে ছিলেন, ভারতে ফ্রান্সের রাষ্ট্রদূত ইমানুয়েল লেনেন, ফরাসি বায়ুসেনার ভাইস চিফ অফ এয়ার স্টাফ এয়ার জেনারেল এরিক অটেলেট সহ অন্যান্য বিশিষ্ট জনেরা।

ভারতীয় বায়ুসেনা দপ্তর সূত্রে খবর, আনুষ্ঠানিক অন্তর্ভুক্তির পর এবার থেকে পাঁচটি রাফায়েল যুদ্ধবিমান ভারতীয় বায়ুসেনা বিভাগের ১৭ নম্বর স্কোয়াড্রন, ‘দ্য অ্যারোজ’-এর অন্তর্ভুক্ত হলো। উল্লেখ্য, ২০১৬ সালে ৫৮ হাজার কোটি টাকার বিনিময়ে ফ্রান্সের দাসো এভিয়েশনের সাথে ৩৬টি রাফায়েল যুদ্ধবিমান কেনার চুক্তি স্বাক্ষরিত করে ভারত। প্রতিশ্রুতি মত, চলতি বছরের ২৯ শে জুলাই পাঁচটি রাফায়েল যুদ্ধবিমান পাঠায় ফ্রান্স। যুদ্ধবিমান গুলি চালনায় ভারতীয় পাইলটদের প্রশিক্ষিত করেছেন ফরাসি পাইলটেরা। করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে বাকি যুদ্ধ বিমান গুলিও ভারতে পাঠাবার ব্যবস্থা করবে ফ্রান্স।