টানা ধর্মঘটে যেতে পারেন ব্যাংকের কর্মীরা, আগেভাগেই সেরে রাখুন জরুরি কাজ

প্রতীক ছবি

আরো একটি খারাপ খবর আসতে চলেছে সরকারি ব্যাংকের গ্রাহকদের জন্য। ব্যাক বেসরকারিকরণ নিয়ে কিছু দিনের মধ্যে ইউনিয়নগুলি আরো একবার বন্ধের পথে হাঁটতে চলেছে। তাই ব্যাংক সম্পর্কিত কাজ যদি থাকে তা করেনিন আজই। সারা ভারতে ব্যাংক ইউনিয়নগুলি বিভিন্ন সংগঠনের সঙ্গে বৈঠক করছেন। বৈঠকের পরে এই আন্দোলন আরও বেশি জোরদার হবে বলেই মনে করা হচ্ছে। এই বৈঠকে অংশগ্রহণ করেছেন প্রায় ২৬২ জন কাউন্সিলর সদস্যরা। ব্যাংক সংযুক্তিকরণ এর বিরুদ্ধে তারা ইঙ্গিত দিয়েছেন লম্বা আন্দোলনের

গত 15 এবং 16 ই মার্চ 2 দিনের ব্যাংক বন্ধের জন্য আটকে পড়েছে প্রায় 16 হাজার 500 টাকা কোটি চেক এবং ভাউচার। এইরকম যদি হরতাল চলতে থাকে তাহলে আগামী দিনে বড় চরম বিপদের মুখে পড়তে হবে সাধারণ মানুষকে।দিল্লির ব্যাংক অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশনের মহাসচিব অশ্বিনী রানা সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন যে, আমাদের এই আন্দোলনের ফলে বেশকিছু দিন টানা ব্যাংক বন্ধ থাকবে। তার ফলে বেশকিছু পরিষেবা যেমন মোবাইল অ্যাপ, নেট ব্যাংকিং এবং এটিএম এর মত পরিষেবা ব্যবহার করতে পারবেন সাধারণ মানুষেরা।

যে সমস্ত ব্যাংকের মোবাইল অ্যাপ রয়েছে সেগুলি ব্যবহার করে টাকা লেনদেন করতে পারবেন আপনি। ব্যাংকের ধর্মঘটের জন্য এই পরিষেবাতে কোনো রকম প্রভাব পড়বে না। বর্তমানে এফবিতে বিনিয়োগ অথবা ক্রেডিট কার্ড বিল সবকিছুই মোবাইলের মাধ্যমে দেওয়া যায়। আগামী দশ দিন তানা ব্যাংক বন্ধ থাকতে পারে, ১০ তারিখ থেকে ২০ তারিখ বিভিন্ন কারণে ব্যাংক বন্ধ থাকবে।

এর মধ্যে রয়েছে শনিবার রবিবার, বৈশাখী ফেস্টিভাল, তেলেগু নববর্ষ, ডঃ বি আর আম্বেদকরের জন্মদিন, তামিল নববর্ষ, সম্রাট অশোকের শুভ জন্মদিন, মহাবিষুব সংক্রান্তি, হিমাচল ডে, বহাগ বিহু এই সমস্ত অনুষ্ঠান গুলি। তাই দেরি না করেই সেরে ফেলুন আপনার ব্যাংক সম্পর্কিত সমস্ত কাজ।