ঘরের দরজা খুলতেই সামনে দাঁড়িয়ে শিল্পপতি রতন টাটা, প্রাক্তণ কর্মচারী পড়লেন আকাশ থেকে

শুধুমাত্র ধন সম্পত্তির দিক থেকে নয়,, বড় মনের অধিকারী হলেন রতন টাটা। আর শুধুমাত্র বুদ্ধি দিয়ে নয়, সকলের প্রতি ভালোবাসা থাকার জন্য তিনি আজকে এই জায়গায় গিয়ে দাঁড়িয়েছেন। তার মানবিকতার আরো একটি নিদর্শন পাওয়া গেল কিছুদিন আগে। রতন টাটার একজন বিশ্বস্ত কর্মচারী দুই বছর ধরে অসুস্থ। একেবারে গৃহবন্দি হয়েছিলেন তিনি। একথা হঠাৎই একটি পোষ্টের মাধ্যমে জানতে পারলেন রতন টাটা।তারপর তার কান্ড কারখানা শুনলে আপনি অবাক হয়ে যাবেন।

রতন টাটা এমন একজন মানুষ যিনি এই বয়সেও নিজের দায়িত্ব সামলান নিঃশব্দে। তার সংস্থায় কর্মরত একজন বিশ্বস্ত প্রাক্তন কর্মচারীর এইরকম অসুস্থ হয়ে পড়ার ঘটনা শুনে তিনি সোজা চলে যান তার বাড়িতে। এই প্রাক্তন কর্মচারীর বাড়ি পুনেতে। কাউকে কিছু না জানিয়ে তিনি সাতসকালে হাজির হয়ে যান পুনেতে সেই কর্মচারীর বাড়িতে।

একেবারে পৌঁছে যান সেই প্রাক্তন কর্মচারীর বাড়ির গেটে। স্বাভাবিকভাবেই ঐ কর্মচারি হঠাৎ করে রতন টাটা কে দেখতে পেয়ে হতবাক হয়ে যান। কি করবেন কি বলবেন কিছুই বুঝে উঠতে পারেন না। তার জায়গায় অন্য কোন ব্যক্তি থাকলেও তিনি বোধহয় একই কাজ করতেন। কখনো কেউ সপ্নে ভাবতে পারেন না যে, রতন টাটার মত একজন ব্যক্তি কোন সাধারণ মানুষের বাড়িতে গিয়ে দাঁড়াবেন।

রতন বাবু সেই কর্মচারীর বাড়িতে গিয়ে তার শরীরের হালচাল জানতে চাইলেন। তারপর প্রতিশ্রুতি দিলেন তার সহায়তার। বেশিক্ষণ অবশ্য তিনি সেখানে থাকেন নি।কুশল বিনিময় করে জরুরী কিছু কথা বলেই সেখান থেকে বেরিয়ে যান তিনি।কর্মচারীদের প্রতি এই রকম একটি মনোভাব আরো একবার সকলের মনে আলাদা জায়গা করে নিলেন রতন টাটা।