বনকর্মীর ছোড়া গুলিতে বনবস্তিবাসির মৃত্যু! বনদপ্তরের গাড়ি ও অফিসে ভাঙচুর

বনকর্মীর ছোড়া গুলিতে বনবস্তিবাসির মৃত্যু

আলিপুরদুয়ারঃ বনকর্মীর ছোড়া গুলিতে বনবস্তিবাসির মৃত্যুর ঘটনা ঘটল। রবিবার গভীর রাতে জলদাপাড়া জাতীয় উদ্যানের কোদাল বস্তি রেঞ্জের মন্থরাম বিটের জংগলে এই ঘটনা ঘটেছে বলে খবর। জানা গিয়েছে মৃত যুবকের নাম বিমল রাভা (৩৩)। তিনি জলদাপাড়া জংগল লাগোয়া উত্তর মেন্দাবাড়ি এলাকার বাসিন্দা। বন দফতর সুত্রে জানা গিয়েছে রবিবার গভীর রাতে মন্থরাম বিটের জংগলে গাছ কেটে ফেলার শব্দ পান বনকর্মীরা। সংগে সংগে কোদালবস্তি রেঞ্জ থেকে বনদফতরের একটি দল ঘটনাস্থলে পৌছায়। জাতীয় উদ্যানের সংরক্ষিত ওই এলাকায় বনকর্মীরা পৌছানো মাত্র ২০/২৫ জনের কাঠ মাফিয়াদের একটি দল বনকর্মীদের আক্রমন করে। ভোজালি, পাথর দিয়ে বনকর্মীদের উপর আক্রমন করা হয়। বনকর্মীদের লক্ষ্য করে গুলিও চালান দুষ্কৃতিরা বলে অভিযোগ। সেই সময় বনকর্মীরাও পালটা গুলি চালান।

গুলি চালনার পরেই কাঠচোরদের দলটি পালিয়ে যায়। কিন্তু বিমল রাভা নামে ওই যুবক সেখানেই পড়ে থাকে। বনকর্মীরাই তাকে উদ্ধার করে আলিপুরদুয়ার জেলা হাসপাতালে নিয়ে আসে। পথেই বিমল রাভার মৃত্যু হয়। গুলি বিদ্ধ হয়ে বিমল রাভার মৃত্যু হয়েছে বলে আলিপুরদুয়ার জেলা হাসপাতাল সুত্রে জানা গিয়েছে। এদিকে এই ঘটনার পরেই অভিযুক্ত বনরক্ষীকে ক্লোজড করেছে রাজ্য বন প্রশাসন। রাজ্যের বন্যপ্রান বিভাগের প্রধান মুখ্যবনপালের নেতৃত্বে তদন্ত কমিটি করা হয়েছে। এই কমিটিকে সাতদিনের মধ্যে রিপোর্ট দিতে বলা হয়েছে।

ঘটনার বিভাগীয় তদন্ত শুরু হয়েছে। রাজ্যের বনমন্ত্রী রাজীব বন্দোপাধ্যায় এদিন বিভিন্ন কর্মসূচীতে আলিপুরদুয়ারে ছিলেন। তিনি বলেন, ” অভিযুক্ত বনরক্ষীকে ক্লোজড করা হয়েছে। রাজ্যের প্রধান মুখ্যবনপালের নেতৃত্বে একটি তদন্ত কমিটি করা হয়েছে। এই কমিটি সাতদিনের মধ্যে রিপোর্ট দেবে। আমরা মৃত যুবকের পরিবারের সংগেও কথা বলছি। সহানুভুতির সংগে বিষয়টি দেখা হচ্ছে।”

এদিকে সকালে বনকর্মীদের গুলিতে বনবস্তিবাসির মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়তেই জলদাপাড়া জাতীয় উদ্যান লাগোয়া বনবস্তিবাসিগুলোতে ক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে। বিভিন্ন বন বস্তি থেকে মানুষেরা কোদালবস্তি রেঞ্জ অফিস ঘিরে বিক্ষোভ শুরু করে। বনদফতরের গাড়িতে ভাংচুর চালানো হয়। বনদফতরের অফিসেও ভাংচুর করে উত্তেজিত জনতা। পরে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে।

সমস্তরকম এক্সক্লুসিভ খবর পেতে লাইক করুন