বিধানসভায় CAA বিরোধী প্রস্তাবে পিছু হাঁটল রাজ্য, CAA বিরোধী হয়ে কেন এই মন্তব্য মমতার?

এখন সময় নেই, তাই এখন আর বিধানসভায় আলোচনা হবে না এই এন আর সি ও সিএএ নিয়ে। এবার রাজ্য আর কেরালার পথে চলল না। এবার অধ্যক্ষ রাজি হল না এই সব ব্যাপার নিয়ে বিধানসভায় কথা বার্তার জন্য। এই আবেদন কংগ্রেস ও সিপি আই এম করেছিল, যাতে এন আর সি ও সিএএ নিয়ে বিধানসভায় আলোচনা হয়।

আসলে এই এন আর সি ও সিএএ নিয়ে কথা বলার জন্য একটি কমিটি গঠন করা হয়, সেই কমিটির নাম হল বি এ টিম। সেখানে কংগ্রেস ও সিপি আই এম আবেদন করেছিল যাতে কেরলের মতো সিএএ ও এন আর সি নিয়ে কথা বার্তা বলা হয়, প্রস্তাব আনা হয়। কিন্তু বিধানসভার অধ্যক্ষ জানিয়েছেন এইসব অন্য কাজে কোনও ধরনের সময় নেই।

এদিকে মুখ্যমন্ত্রী বিধানসভায় বক্তব্য রাখার পথে বাধা হয়ে দাড়ান সিপি আই এমের নেতা সুজন চক্রবর্তী। তিনি বলেন আমরা একসাথে লড়াই করতে চেয়েছিলাম। কিন্তু আপনারা রাজি হলেন না। এর পরে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, আপনারা যেভাবে বনধের নামে গুন্ডামি করেছে, তার পরে আপনাদের সাথে কাজ করা সম্ভব না, আমি আগামী ১৩ জানুয়ারীতেও দিল্লিতে যাবো না।

সমস্তরকম এক্সক্লুসিভ খবর পেতে লাইক করুন

তিনি আরও বলেন, আমি সবার আগে সিএএ নিয়ে পথে নেমেছি, কিন্তু আপনারা যে গুন্ডামি করেছেন তার পরে আর একসাথে কাজ করা সম্ভব নয়। আমি আগামী দিল্লির বৈঠকেও যাবো না। এর পরেই বিধানসভায় বেধে যায় তর্কাতর্কি শাসক দল ও বিরোধী দলের মধ্যে।