পুলিশের জালে ধরা পড়লো ধনীরামপুর ধর্ষণ কাণ্ডের মূল অভিযুক্ত

767

আলিপুরদুয়ার:- শেষে পুলিশের হাতে ধরা পড়লো ফালাকাটা ধনীরামপুরের নাবালিকা খুনের অভিযুক্ত আমিন আলী।তাকে জটেশ্বর ফাঁড়ির অন্তর্গত প্রমোদনগর এলাকার শ্বশুরবাড়ির আশপাশে গা ঢাকা দিয়ে ছিলো।তাকে সেখান থেকেই গ্রেফতার করা হয়।তার বাড়ি ধনীরামপুরের ঘাটপার সরুগাও এলাকায়।নবমীর দিন ১১ বছরের এক নাবালিকাকে ধর্ষণ করে গলা টিপে হত্যা করে অভিযুক্ত।ওই নাবালিকার মৃতদেহ দশমীর দিন বাড়ির একটু দূরে ধানের জমির পাশে একটি নালায় পরে থাকতে দেখা যায়।স্থানীয়রা খবর দিলে পুলিশ এসে মৃতদেহ উদ্ধার করে।এতদিন ধরে পালিয়ে বেড়াচ্ছিল মূল অভিযুক্ত।এদিকে এতদিন অভিযুক্ত অধরা থাকায় ক্ষোভে ফুসছিলো এলাকার মানুষ,বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও অরাজনৈতিক সংগঠন আন্দোলনে সামিল হয়।

মূল অভিযুক্ত ধরার আগেই পুলিশের চোখে ধুলো দিয়ে সে এলাকা ছেড়ে পালিয়ে যায়।অভিযুক্তকে ধরার জন্য পুলিশ গোপনে অভিযান চালায়,মঙ্গলবার পুলিশ তাকে ধরতে সক্ষম হয়।সে মঙ্গলবার সন্ধ্যা নাগাদ টোটো করে প্রমোদনগর শ্বশুরবাড়ি আসছিল।গোপনসূত্রে খবর পেয়ে পুলিশ অভিযান চালিয়ে ধরে ফেলে অভিযুক্তকে।পুলিশি জেরায় আমিন আলী সব কুকর্ম স্বীকার করে,আরো কেউ জড়িত আছে কিনা খতিয়ে দেখছে পুলিশ।অভিযুক্ত গ্রেফতার হওয়ায় খুশি এলাকার মানুষ।নাবালিকার বাবা জানান,অভিযুক্ত ধরা পড়ায় সে খুশি, অভিযুক্তর ফাঁসি চাই।ইতিমধ্যে প্রেস কনফারেন্স করে আলিপুরদুয়ারের পুলিশ সুপার নগেন্দ্র ত্রিপাঠি সব ঘটনার কথা জানান,ধর্ষণের ঘটনা ধামাচাপা দিতেই নাবালিকাকে খুন করা হয়েছে,কি করে মূল অভিযুক্তকে ধরা হলো সব তিনি বলেছেন,শুনে নিন তিনি কি বললেন।

এই রকম আপডেট পেতে লাইক করুন