ভারতের এক ইঞ্চি জমিও কেউ কাড়তে পারবে না, নাম না করে চিনের বিরুদ্ধে হুঙ্কার অমিত শাহের

দীর্ঘ কয়েক মাস ধরে লাদাখের ভারত-চীন সীমান্তে ঘাঁটি গেড়ে রয়েছে চীনের পিপলস লিবারেশন আর্মির সদস্যরা। উভয় রাষ্ট্রের মধ্যে দফায় দফায় একাধিকবার বৈঠকের পরেও নিজেদের অবস্থান থেকে এক চুলও নড়তে রাজি নয় চীন। চীনের এই অবস্থানে বিরক্ত ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী অমিত শাহ একটি সাক্ষাৎকারে চীনের নাম উল্লেখ না করে রীতিমতো হুঁশিয়ারি দিয়ে বললেন, “ভারতের এক ইঞ্চি জমিও কেড়ে নিতে পারবে না কেউ”।

শনিবার একটি টিভি চ্যানেলে সাক্ষাৎকার দিতে গিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, যেকোনো ধরনের আক্রমণ প্রতিহত করতে সক্ষম ভারতের নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা। দেশের প্রতি ইঞ্চি জমি রক্ষা করতে বদ্ধপরিকর ভারত। দেশের সার্বভৌমত্ব ও সীমান্ত রক্ষার্থে সদা তৎপর ভারতের নিরাপত্তাবাহিনী। তিনি আরো বলেছেন, শত্রুর সমস্ত আঘাত প্রতিহত করার যোগ্যতা আছে ভারতের নিরাপত্তা বাহিনী এবং কেন্দ্রীয় নেতৃত্বদের।

উল্লেখ্য, কিছুদিন আগেই চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং চীনের সেনাবাহিনীকে আসন্ন যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত থাকার নির্দেশ দেন। এ বিষয়ে সরাসরি কোনো প্রতিক্রিয়া না দিলেও, সাক্ষাৎকার দেওয়ার সময় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, দেশের সুরক্ষা রক্ষার্থে প্রতিটি দেশের সেনাবাহিনী সবসময় যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত থাকে। ভারতের প্রতিরক্ষাবাহিনীও দেশের নিরাপত্তা রক্ষার্থে সদা তৎপর।

গত ১৩ই অক্টোবর ভারত এবং চীনের মধ্যে সপ্তম দফার আলোচনা সম্পন্ন হয়েছে। টানা ১২ ঘন্টা ধরে বৈঠক চলার পর উভয় রাষ্ট্রের তরফ থেকে বিবৃতি প্রকাশ করে জানানো হয়, প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা থেকে সেনা প্রত্যাহার করতে এবং সীমান্তে শান্তি বজায় রাখার উদ্দেশ্যে উভয় রাষ্ট্রের মধ্যে শান্তিপূর্ণ আলোচনা চলবে। আলোচনার মাধ্যমেই সীমান্ত সমস্যার সমাধান সূত্রে পৌঁছানোর চেষ্টা চালাবে উভয় প্রতিবেশী রাষ্ট্র।