কৃষক আন্দোলনে কি হবে কংগ্রেসের ভূমিকা? আজ দলীয় বৈঠক করবেন সোনিয়া গান্ধী

এক মাসেরও বেশি কিছু সময় ধরে কেন্দ্রের প্রণীত নতুন কৃষি আইনের বিরুদ্ধে দিল্লিতে বিক্ষোভ প্রদর্শন করছেন লক্ষ লক্ষ কৃষক। কৃষক আন্দোলন নিয়ে রাজনৈতিক তরজাও বেশ তুঙ্গে। কৃষক সংগঠনের নেতা নেতৃত্ব এবং কেন্দ্রীয় সরকারের মধ্যে দফায় দফায় বৈঠকেও কোনো সমাধান সূত্রে পৌঁছানো সম্ভব হচ্ছে না। কৃষকের এখনো আইন প্রত্যাহারের দাবিতে অনড়। এমতাবস্থায় কৃষক আন্দোলনে কংগ্রেসের ভূমিকা কি হওয়া উচিত, সেই নিয়ে আজ দলীয় কর্মীদের সঙ্গে বৈঠকে বসছেন কংগ্রেস নেত্রী সোনিয়া গান্ধী।

কংগ্রেস নেত্রী সোনিয়া গান্ধী আজ একটি ভার্চুয়াল বৈঠকের মাধ্যমে দলের সাধারণ সম্পাদক ও অন্যান্য নেতাদের সঙ্গে আলোচনা করবেন বলে জানা গিয়েছে। উল্লেখ্য, কংগ্রেস অবশ্য বহু আগেই কৃষকদের সমর্থন করার কথা ঘোষণা করেছে। তবে আজকের বৈঠকের মাধ্যমে আগামী দিনে কৃষকদের পাশে থাকার জন্য কি কি পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে, সেই সম্পর্কে আলোচনা করা হতে পারে বলে জানানো হয়েছে।

কংগ্রেস বরাবরই কেন্দ্রের প্রণীত নতুন তিনটি কৃষি আইনের বিরোধিতা করেছে। এ বিষয়ে বিজেপি সরকারের সমালোচনা করেছে। কংগ্রেস সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধীও আইন প্রত্যাহারের দাবি তুলেছিলেন। বিশিষ্ট সংবাদ সংস্থা এএনআই সূত্রে খবর, কৃষক আন্দোলনের স্বপক্ষে এবার কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে আরও বড় আন্দোলন করার কথা ভাবছে কংগ্রেস শিবির। সেই বিষয়েই আলোচনা হবে আজকের বৈঠকে।

উল্লেখ্য, শুক্রবারেই পূর্ব উত্তরপ্রদেশের দায়িত্ব প্রাপ্ত প্রিয়ঙ্কা গান্ধী বঢড়া জানিয়েছেন, নতুন তিনটি বিতর্কিত কৃষি আইন প্রত্যাহার না করা পর্যন্ত তাদের লড়াই চলবে। এদিকে শুক্রবার কেন্দ্র ও কৃষকদের মধ্যে সংগঠিত অষ্টম দফায় বৈঠকও ব্যর্থ হয়েছে। কারণ কৃষি আইন প্রত্যাহার এবং ন্যূনতম সহায়ক মূল্য সম্পর্কে উভয় তরফের মত মিলছে না। এ বিষয়ে আলোচনার জন্য আগামী ১৫ই জানুয়ারি কেন্দ্র এবং কৃষকদের মধ্যে ফের বৈঠক সংঘটিত হতে চলেছে। কেন্দ্রীয় কৃষি আইন নিয়ে কৃষকদের ক্ষোভ ক্রমে বাড়ছে বৈ কমছে না।