নিজেই নন সচেতন, মুখ না ঢেকেই মাস্ক তৈরির কারখানায় হাজির ট্রাম্প, ট্রোলের শিকার প্রেসিডেন্ট

৪ মে তারিখ থেকে খুলে দেওয়া হয়েছে ইতালিকে। পাশাপাশি স্পেন ও গ্রাস কিংবা বেলজিয়ামকেও খুলে দেওয়া হয়েছে। অথচ বিশ্বের প্রথম সারির দেশের মধ্যে আমেরিকার অবস্থা একেবারে শোচনীয়। চিন্তার ভাঁজ ট্রাম্প প্রশাসনের কপালে। যেভাবে লাফিয়ে লাফিয়ে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা সেদেশে বাড়ছে তাতে তো চিন্তা হওয়াটা স্বাভাবিক। কিন্তু প্রতিরোধের চেষ্টায় কোনোরকম খামতি নেই। কিন্তু এই অবস্থাতেও ট্রাম্প যে কতটা অসচেতন তারও উদাহরণ দিলেন। আর তাই তো তিনি মাস্ক না পরেই শয়ে শয়ে শ্রমিকদের হাতে N৯৫ মাস্ক তৈরির কারখানা প্রদর্শণে চলে গেলেন।

যা রীতিমতো বিশ্বজুড়ে প্রশ্ন চিহ্নের অন্যতম কারণ হয়েছে। যেখানে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে চবিব্শি ঘন্টাতেই মৃত্যু হয়েছে
২,৩৩৩ সেখানে ট্রাম্পের এই অসচেতনতা মূলক কাজ নিতান্তই চোখে পড়ার মতো।জানা গিয়েছে মঙ্গলবার ফিনিক্সের হানিওয়েলের একটি মাস্ক তৈরির কারখানায় গিয়েছিলেন ট্রাম্প। সেই কারখানায় মাস্ক তৈরির পদ্ধতিও নিজের চোখে দেখছিলেন ঘুরে ঘুরে। কিন্তু শ্রমিকরা থাকার সত্ত্বেও তাঁকে মাস্ক পড়তে দেখা যায়নি। তা নিয়ে তাঁকে ট্রোলড হতে হল।

যখন বিশ্বজুড়ে করোনা মোকাবিলায় কার্যত প্রাণপাত চেষ্টা করা হচ্ছে ঠিক তখনই ট্রাম্পের এই শিুশুসুলভ আলচরণ সকলকে চমকে দিয়েছে।যদিও এই প্রথমবার নয় এই প্রথম নয়, এর আগেও একাধিক ক্ষেত্রে মাস্ক পড়তে অস্বীকার করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট।প্রসঙ্গত গোটা বিশ্ব এখন কোভিড ১৯ এর কবলে। যার জেরে আক্রান্ত হারিয়েছেন এখনও অবধি ৩৫ লক্ষ মানুষ। যদিও নিহত হয়েছেন আড়াই লক্ষের বেশি মানুষ। আর তাতেই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে প্রায় সত্তর হাজার মানুষ।

সব খবর সরাসরি পড়তে আমাদের WhatsApp  Telegram  Facebook Group যুক্ত হতে ক্লিক করুন