সামাজিক দূরত্বের না মেনেই অ্যাপ উদ্বোধনী অনুষ্ঠান, বসিরহাটে কাঠগড়ায় টিএমসি সাংসদ নুসরাত জাহান

করোনা মহামারীর পরিস্থিতিতে রাজ্যবাসীর উদ্দেশ্যে বারবার সামাজিক দূরত্ব বিধি মেনে চলার বার্তা জানিয়ে এলেও, তৃণমূল সাংসদ এবং নেতাকর্মীরা খোদ সেই নিয়ম নীতি ভাঙলেন। সম্প্রতি, তৃণমূলের একটি মাসিক পত্রিকা এবং অ্যাপ্লিকেশনের উদ্বোধনে কলকাতার টাকি কমিউনিটি হলে একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিল। এই অনুষ্ঠানে তৃণমূলের অন্যান্য নেতাকর্মীসহ উপস্থিত ছিলেন তৃণমূল সাংসদ তথা টলিউড অভিনেত্রী নুসরাত জাহান।

এদিন নুসরাতকে দেখতে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ভিড় জমান সাধারন মানুষ। সমালোচকদের অভিযোগ, এই অনুষ্ঠানে যোগদানকারী অনেকের মুখেই মাস্ক ছিলনা। পাশাপাশি মঞ্চে, তৃণমূল সাংসদ বিধায়ক এবং অন্যান্য নেতাকর্মীদের সামাজিক দূরত্ববিধি সিকেয় তুলে একসাথে গা ঘেঁষাঘেঁষি করে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যায়। এই দৃশ্য দেখার পর তৃণমূল সাংসদ এবং নেতাকর্মীদের সচেতনতার অভাবকে কেন্দ্র করে কটাক্ষ করেছেন অনেকেই।

উল্লেখ্য, এদিনের অনুষ্ঠান মঞ্চে বসিরহাট দক্ষিণের বিধায়ক দীপেন্দু বিশ্বাস ‘জয়বাংলা’ নামের একটি মাসিক পত্রিকা এবং ‘বিধায়ক শুনছেন’ নামক একটি অ্যাপ উদ্বোধন করেন। এদিনের অনুষ্ঠান মঞ্চে দাঁড়িয়ে বিধায়ক জানান, এই মাসিক পত্রিকার মাধ্যমে বসিরহাটের সমস্ত উন্নয়নমূলক কাজ এবং সমস্যার কথা তুলে ধরবে তৃণমূল। পাশাপাশি “বিধায়ক শুনছেন” অ্যাপ্লিকেশনটির মাধ্যমে বসিরহাটবাসী তাদের সমস্যা এবং অভিযোগের কথা বিধায়কের কাছে জানাতে পারবেন।

উল্লেখ্য, এদিনের অনুষ্ঠান মঞ্চে তৃণমূল সাংসদ তথা টলিউড অভিনেত্রী নুসরাত জাহান আসন্ন মহালয়া উপলক্ষে, বসিরহাটের সমস্ত বাসিন্দাকে মহালয়ার দিন সকালে টিভিতে তার বন্ধু তথা আরেক টলিউড অভিনেত্রী মিমি চক্রবর্তীর মহালয়া দেখার অনুরোধ জানান। তিনি বলেন, খুব ছোট থেকেই তিনি মহালয়া দেখেন। এবার তার বন্ধু মিমি মহালয়ায় মা দুর্গার ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছেন। সবাই যেন ঐদিন ভোরে মহালয়া দেখেন।