চারিদিকে বরফের মরুভূমি, প্রসব বেদনায় কাতরাচ্ছেন মহিলা, হাসপাতালে পৌঁছে দিলেন জওয়ানরা

ভারতীয় সেনাবাহিনীর অভিধানে অসাধ্য বলে কিছু নেই। আবার তাদের মানবিকতা বোধ নিয়েও সন্দেহের কোনো অবকাশ থাকতে পারে না। প্রবল তুষারপাতের মধ্যে আসন্ন সম্ভবা প্রসূতিকে স্ট্রেচারে তুলে প্রায় এক কিলোমিটার রাস্তা বয়ে নিয়ে যেতে একমাত্র তারাই পারেন! সম্প্রতি সেরকমই একটি ঘটনার সাক্ষী থাকলো উত্তর কাশ্মীরের কুপওয়ারা জেলা।

বিগত বেশ কিছুদিন ধরেই উত্তর-পশ্চিম দিকের পশ্চিমী ঝঞ্ঝার কারণে জম্বু-কাশ্মীর এলাকায় প্রবল তুষারপাত চলছে। পরিস্থিতি এমনই যে, ঘরের বাইরেও বেরোনো যাচ্ছে না। এরই মাঝে আবার উত্তর কাশ্মীরের কুপওয়ারা জেলার বাসিন্দা মোহাম্মদ মীর চরম বিপাকে পড়েন। বাইরে চরম দুর্যোগ পূর্ণ আবহাওয়া, এদিকে মীরের মেয়ে প্রসব যন্ত্রণায় ঘরে রীতিমতো কাতরাচ্ছেন।

এমন একটি জটিল মুহূর্তে তিনি নিজে তার মেয়েকে স্থানীয় স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে যেতে পারেননি। উপায়ন্তর না দেখে তিনি শেষমেষ ভারতীয় সেনাবাহিনীর দ্বারস্থ হন। তার একটি মাত্র ফোনেই ভারতীয় সেনা বাহিনীর সদস্যরা দ্রুত তার বাড়ি পৌঁছে যান। এরপর তারাই আসন্ন সম্ভবা প্রসূতিকে স্ট্রেচারে তুলে হাসপাতালের উদ্দেশ্যে রওনা দেন। প্রথমটায় তারা গাড়িতে করে হাসপাতালে যাওয়ার চেষ্টা চালিয়েছিলেন বলে জানা যাচ্ছে।

তবে বরফে রাস্তা ঢেকে থাকার দরুন গাড়ি এগোতে পারছিল না। এমতাবস্থায় সেনারা স্ট্রেচার পিঠে করে প্রায় এক কিলোমিটার রাস্তা পেরিয়ে ওই মহিলাকে স্থানীয় স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভর্তি করেন। সেখানেই এক সুস্থ শিশুর জন্ম দেন ওই মহিলা। মা এবং শিশু দুজনেই এখন সম্পূর্ণ সুস্থ। সবটাই সম্ভব হয়েছে ভারতীয় সেনাবাহিনীর জন্য। তাদের জন্যই একটি শিশু পৃথিবীর আলো দেখতে পেয়েছে। এমনতরো ঘটনার কথা প্রকাশ্যে আসতেই সারাদেশ ভারতীয় সেনাবাহিনীকে কুর্নিশ জানাচ্ছে।